শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৩৯

শিল্পকলায় গুণজান বিবির পালা

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

শিল্পকলায় গুণজান বিবির পালা

পদাতিক নাট্য সংসদ শিল্পকলা একাডেমিতে মঞ্চায়ন করল দলটির নিয়মিত প্রযোজনার নাটক ‘গুণজান বিবির পালা’।

দলটির ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে গতকাল সন্ধ্যায় একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মঞ্চায়ন হয় নাটকটি। ঐতিহ্যবাহী পালার আঙ্গিকে নাটকটি পরিবেশন করেছে পদাতিক। ‘সাত ভাই চম্পা’ অবলম্বনে এ পালা নাটকটিকে পালা আকারে তুলে ধরা হয়েছে। সায়িক সিদ্দিকীর রচনা ও নির্দেশনায় নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- মমিনুল হক দীপু, মশিউর রহমান, শাখাওয়াত হোসেন শিমুল, সালমান শুভ, শরীফুল ইসলাম, জীবন, শোভন, রোজা প্রমুখ। ১৯৭৮ সালের ২১ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে পথচলা শুরু করে পদাতিক। একই সময়ে জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে মঞ্চায়ন হয় ভিশন থিয়েটারের নাটক ‘গালিভারের সফর’ ও স্টুডিও থিয়েটার হলে মঞ্চায়ন হয় সমতট নাট্যদল প্রযোজিত নাটক ‘উজান ভাইটাল কইন্যা’।

উৎসবমুখর শিল্পকলা একাডেমি : শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে চলছে ২১ দিনের বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব ২০২০। বঙ্গবন্ধু এবং মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সংগীত ও নৃত্য, নাটকের  কোরিওগ্রাফি, বৃন্দ আবৃত্তি, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সম্প্রদায়ের পরিবেশনা, আঞ্চলিক ও জেলা ব্র্যান্ডিং বিষয়ক সংগীত ও নৃত্য এবং জেলার ঐতিহ্যবাহী ভিডিও চিত্র প্রদর্শনী, সমবেত সংগীত, যন্ত্রসংগীত, ঐতিহ্যবাহী লোকজ খেলা, পালা, একক সংগীত, বাউল সংগীত, ঐতিহ্যবাহী লোকনাট্য, যাত্রা, সমবেত নৃত্য, অ্যাক্রোবেটিক, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের পরিবেশনা, পুতুল নাট্য, একক আবৃত্তি, শিশুদের পরিবেশনাসহ নানা আয়োজনে সাজানো প্রতিদিন বিকাল ৪টা থেকে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত একাডেমির নন্দনমঞ্চ ও উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে চলছে এ উৎসব। আর এসব সাংস্কৃতিক কর্মযজ্ঞে অংশ নিচ্ছেন ৬৪টি জেলা, ৬৪টি উপজেলা এবং জাতীয় পর্যায়ের পাঁচ হাজারের অধিক শিল্পী ও শতাধিক সংগঠন। এ ছাড়াও একাডেমি প্রাঙ্গণে প্রতিদিন রাত ৮টায় থাকছে একটি লোকনাট্যের পরিবেশনা। গতকাল ছিল ২১ দিনের এই উৎসবের ১৯তম দিন। যথারীতি জাতীয়সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বিকাল ৪টায় একাডেমির নন্দনমঞ্চে শুরু হয় এদিনের আয়োজন। এরপর প্রতিদিনের মতো অ্যাক্রোবেটিক শো সমবেতসংগীত, এককসংগীত, দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীরা। দ্বিতীয় পর্বে জেলা পরিবেশনা পর্বে নিজ নিজ জেলার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকা  নিয়ে অংশ নেয় লক্ষ্মীপুর, লালমনিরহাট ও চাঁদপুর জেলার শিল্পীরা। রাত ৮টায় একাডেমি প্রাঙ্গণে পরিবেশিত হয় ঐতিহ্যবাহী লোকনাট্য ‘কবিগান’। কাল শেষ হবে ২১ দিনের উৎসব।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর