শিরোনাম
সোমবার, ১৩ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ টা
দুই উপনির্বাচন

প্রস্তুত ইসি কাল ভোট

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের প্রকোপের মধ্যে কাল অনুষ্ঠিত হবে বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনে উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ। নির্বাচন কমিশন ভোট গ্রহণের সব প্রস্তুতি শেষ করেছে। কাল ১৪ জুলাই সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত টানা ভোট গ্রহণ চলবে। ভোটের দিন সকালে ভোট কেন্দ্রে ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী মালামাল পাঠানো হবে। এ দুই উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টিসহ কয়েকটি দলের প্রার্থী থাকলেও বিএনপি ভোটে না থাকার ঘোষণা দিয়েছে। যদিও ব্যালটে তাদের প্রতীক থাকছে। এদিকে বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচনকে সামনে  রেখে মাঠে রয়েছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগামী ১৬ জুলাই পর্যন্ত তারা দায়িত্ব পালন করবেন। ইসির কর্মকর্তারা জানান, করোনাভাইরাসের কারণে ভোট গ্রহণের দিন স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হবে। ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের জন্য থাকবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। ভোট গ্রহণ কর্মকর্তার জন্য থাকবে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড গ্লাভস। সেই সঙ্গে ভোটার লাইনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা দিয়েছে কমিশন। সচেতনতা বাড়ানোর জন্য প্রত্যেক কেন্দ্রের সামনে ব্যানার থাকবে। কী করতে হবে নির্দেশনা থাকবে। এছাড়া ভোটাররা হাত ধুয়ে ভোট দেবেন, আবার ভোট দিয়ে হাত ধুয়ে বের হবেন। উল্লেখ্য, গত ১৮ জানুয়ারি আবদুল মান্নানের মৃত্যুতে বগুড়া-১ আসনটি শূন্য হয়। সাবেক জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেকের মৃত্যুতে যশোর-৬ আসনটি ২১ জানুয়ারি শূন্য হয়। এরপর ২৯ জানুয়ারি ভোটের তারিখ দিয়ে এই আসনে উপনির্বাচনের তফসিল হয়েছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে শেষ মুহূর্তে ভোট স্থগিত করা হয়। পরে গত ৪ জুলাই আবারও ভোট গ্রহণের তারিখ ঘোষণা করে কমিশন। প্রচারণা শেষ : বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচনের প্রচার শেষ হয়েছে গতকাল সকাল ৯টায়। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের (আরপিও) ৭৮ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ভোট গ্রহণ শুরুর পূর্ববর্তী ৪৮ ঘণ্টা এবং ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টা সময়ের মধ্যে নির্বাচনী এলাকায় যে কোনো ধরনের সভা, সমাবেশ ও মিছিল, শোভাযাত্রা করা যাবে না। অর্থাৎ গতকাল সকাল ৯টা থেকে আগামী বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা সব ধরনের প্রচার বন্ধ রাখতে হবে। এছাড়া আসন্ন বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) ও যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে উপনির্বাচন উপলক্ষে ভোটের আগে-পরে ৭২ ঘণ্টার জন্য বাইক চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। একই সঙ্গে ভোটের দিন সব ধরনের যন্ত্রযানও বন্ধ থাকবে। বগুড়া-১ আসন : মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের পর আসনটির উপনির্বাচনের বৈধ ছয় প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ করেছিলেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা। প্রার্থীরা হলেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল মান্নানের সহধর্মিণী সাহাদারা মান্নান (নৌকা), বিএনপির এ কে এম আহসানুল তৈয়ব জাকির (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টির মোকছেদুল আলম (লাঙ্গল), প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) মো. রনি (বাঘ), বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নজরুল ইসলাম (বটগাছ) ও স্বতন্ত্র ইয়াসির রহমতুল্লাহ ইন্তাজ (ট্রাক)। এ নির্বাচনে মোট ৩ লাখ ৩০ হাজার ৮৯৩ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। যশোর-৬ আসন : এ আসনে বৈধ তিন প্রার্থী প্রতীক পেয়েছিলেন। তারা হলেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহীন চাকলাদার (নৌকা), বিএনপির প্রার্থী আবুল হোসেন আজাদ (ধানের শীষ) ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব (লাঙ্গল)। এ আসনে ২ লাখ ৩ হাজার ১৮ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন।

ভোটের তারিখ পরিবর্তনের দাবি জাপার : দুই উপনির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের জন্য নির্বাচন কমিশনকে আবারও অনুরোধ জানিয়েছে জাতীয় পার্টি। গতকাল জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপির নেতৃত্বে জাতীয় পার্টির একটি প্রতিনিধি দল প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে দেখা করে। পরে আবু হোসেন বাবলা বলেন, আগামীকাল ১৪ জুলাই সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। দলীয়ভাবে জাতীয় পার্টি দিনটিতে নানা কর্মসূচি পালন করবে। তাই উপনির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করতে কমিশনকে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর