শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪০

জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক

জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী আজ

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীরউত্তমের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১৯৩৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বগুড়ার গাবতলী উপজেলার বাগবাড়ী গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক              রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল বাণী দিয়েছেন। এদিকে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের পক্ষ থেকে দুই দিনের কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। আজ ঢাকাসহ দেশের প্রতিটি এলাকায় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন, রাজধানীর শেরেবাংলানগরে জিয়ার সমাধিতে দলের নেতা-কর্মীরা ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করবে। ইতিমধ্যেই পোস্টার প্রকাশ ও ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হয়েছে। কেন্দ্রের পাশাপাশি সারা দেশের জেলা, মহানগর, উপজেলা, থানা,  পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিটে জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উদ্যাপন করা হবে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সেক্টর কমান্ডার ও জেড ফোর্সের প্রধান হিসেবে জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ দিবাগত রাতে অসহযোগ আন্দোলনরত বাঙালির ওপর পাকিস্তান সেনাবাহিনী একযোগে আক্রমণ চালালে শুরু হয় মুক্তিযুদ্ধ। ২৭ মার্চ সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে অষ্টম বেঙ্গল রেজিমেন্টের উপ-অধিনায়ক মেজর জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর পক্ষে মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা দেন। দেশ স্বাধীনের পর তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর উপ-প্রধান নিযুক্ত হন। ১৯৭৫ সালের ৭ নভেম্বর রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি। পরে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের নতুন দর্শনের ভিত্তিতে গঠন করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। ১৯৮১ সালের ৩০ মে গভীর রাতে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে বিপথগামী কিছু সেনা সদস্যের গুলিতে নিহত হন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। দুই দিনের কর্মসূচি : কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, সকাল সাড়ে ১০টায় নেতা-কর্মীদের শেরেবাংলানগরে জিয়াউর রহমানের সমাধিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ। কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারা দেশের সব দলীয় কার্যালয়ে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন, দৈনিক সংবাদপত্রে ক্রোড়পত্র ও পোস্টার প্রকাশ এবং কেন্দ্রীয় বিএনপির উদ্যোগে ঢাকায় বিকাল ৩টায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। দলের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসহ পেশাজীবী সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা, আলোকচিত্র প্রদর্শন এবং চিকিৎসকদের সংগঠনগুলোর ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পের আয়োজন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট বার অডিটোরিয়ামে আগামীকাল বেলা ২টায় জিয়ার কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা সভা করবে। জেলা ও মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকেও দিবসটি নানা কর্মসূচির মাধ্যমে পালন করা হবে।


আপনার মন্তব্য