শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৮ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ মার্চ, ২০২১ ২৩:৪৮

জমে উঠেছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচন

১৪ পদে লড়ছেন ৫১ প্রার্থী

আরাফাত মুন্না

জমে উঠেছে আসন্ন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (সুপ্রিম কোর্ট বার) নির্বাচন। ভোটের দিন যত ঘনিয়ে আসছে, বাড়ছে প্রার্থীদের ব্যস্ততা। প্রতিদিন প্রার্থীরা ছুটছেন ভোটারদের কাছে। তবে করোনাকালে প্রচার-প্রচারণা চালাতে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তাদের। স্বাস্থ্যবিধিও খুব একটা মানতে দেখা যাচ্ছে না কাউকে। আগামী ১০ ও ১১ মার্চ অনুষ্ঠেয় দুই দিনব্যাপী এ নির্বাচনে ৭ হাজার ৭২২ জন আইনজীবী ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। সমিতির ২০২১-২২ সেশনের নির্বাচনে সভাপতি-সম্পাদকসহ ১৪টি পদে মোট ৫১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচন নির্দলীয় হলেও বরাবরের মতো এবারও সরকারে থাকা আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত আইনজীবীদের দুটি আলাদা প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। দুই দলের সমর্থকদের মধ্য থেকে বিদ্রোহী প্রার্থীও হয়েছেন কেউ কেউ। জয়ের আশা দেখছেন সব প্রার্থীই। আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীদের সংগঠন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ থেকে এ বছর সভাপতি পদে সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী সাবেক আইনমন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু এবং সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট আবদুল আলীম মিয়া জুয়েলকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের (নীল প্যানেল) সদস্যসচিব অ্যাডভোকেট মো. ফজলুর রহমানকে সভাপতি এবং বারের বর্তমান সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলকে সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা আরও একটি প্যানেল ঘোষণা করেছেন। এই প্যানেলে সভাপতি পদে অ্যাডভোকেট ওয়ালিউর রহমান খান এবং সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট মির্জা আল মাহমুদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ ছাড়া সভাপতি পদে অ্যাডভোকেট কে এম জাবির ও অ্যাডভোকেট মো. ইউনুস আলী আকন্দ এবং সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট গিয়াসউদ্দিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী সমর্থক প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী আবদুল মতিন খসরু বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমরা জয়ের বিষয়ে শতভাগ আশাবাদী।’ তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে জয়ী হলে সুপ্রিম কোর্ট বারের সব কার্যক্রম ডিজিটালাইজেশন করা হবে। এ ছাড়া দেশের বিচার বিভাগের অন্যতম বড় সমস্যা মামলাজট নিরসনে প্রধান বিচারপতি ও আইনমন্ত্রীর সঙ্গে পরামর্শ করে আমরা সহায়ক হিসেবে কাজ করব।’ অন্যদিকে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেলের মনোনীত সম্পাদক প্রার্থী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলও জয়ের বিষয়ে শতভাগ আশাবাদী বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষ কোথাও ভোট দিতে পারেন না। শুধু এই একটা জায়গায়ই ভোটাররা ভোট দিতে পারেন। তাই আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার স্বার্থে তারা আমাদের ভোট দেবেন।’

সাদা প্যানেল : আওয়ামী সমর্থক আইনজীবীদের সংগঠন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ থেকে (সাদা প্যানেল) এ বছর নির্বাচনে সভাপতি পদে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরুকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া এই প্যানেল থেকে অ্যাডভোকেট আবদুল আলীম মিয়া জুয়েলকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে সম্পাদক পদে। সাদা প্যানেলের অন্য প্রার্থীরা হলেন- সহ-সভাপতি মুহাম্মদ শফিক উল্ল্যা এবং মো. আলী আজম, কোষাধ্যক্ষ ড. মো. ইকবাল করিম, সহ-সম্পাদক ব্যারিস্টার সাফায়েত সুলতানা রুমি এবং অ্যাডভোকেট নুরে আলম উজ্জ্বল। সদস্য পদে মনোনীতরা হলেন- অ্যাডভোকেট মিন্টু কুমার মন্ডল, ব্যারিস্টার মুনতাসীর উদ্দিন আহমেদ, ব্যারিস্টার মো. সানোয়ার হোসেন, অ্যাডভোকেট এ বি এম শিবলী সালেকীন, অ্যাডভোকেট মো. সিরাজুল হক, অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন আহমেদ ও অ্যাডভোকেট মাহফুজুর রহমান রোমান।

নীল প্যানেল : বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের (নীল প্যানেল) সদস্যসচিব অ্যাডভোকেট মো. ফজলুর রহমানকে সভাপতি এবং ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলকে সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। সভাপতি-সম্পাদক ছাড়াও এই নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্যানেল থেকে দুটি সহ-সভাপতি পদে জয়নাল আবেদিন তুহিন ও জালাল আহমেদ, দুটি সহ-সম্পাদক পদে মাহমুদ হাসান ও রাশিদা আলম ঐশী, কোষাধ্যক্ষ আবদুল্লাহ আল মাহবুব এবং সাতটি সদস্য পদে মনজুরুল আলম সুজন, শফিকুল ইসলাম শফিক, গোলাম মোহাম্মদ জাকির, পারভীন কাওসার মুন্নি, রেদওয়ান আহমেদ রানজিব, নিয়াজ মুহাম্মদ মাহবুব ও ইফতেখার আহমেদকে মনোনীত করা হয়েছে।

বিএনপিপন্থিদের আরেক প্যানেল : এবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য ফোরামের পূর্ণাঙ্গ বিদ্রোহী প্যানেল ঘোষণা করা হয়েছে। এই প্যানেলে সভাপতি পদে অ্যাডভোকেট ওয়ালিউর রহমান খান এবং সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট মির্জা আল মাহমুদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই প্যানেলের অন্য প্রার্থীরা হলেন- সহ-সভাপতি নাহিদ সুলতানা এবং সাবিনা ইয়াসমিন লিপি, কোষাধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন খান সম্রাট, সহ-সম্পাদক জুলফিকার আলী জুনু ও মো. সুলতান মাহমুদ। প্যানেলের সদস্য পদের প্রার্থীরা হলেন শাফিউর রহমান শাফি, মো. মুনির হোসেন, এ কে এম মুক্তার হোসেন, মহিত উদ্দিন জুবায়ের, আকবর হোসেন, ওয়ালিউর রহমান শুভ ও নাজমুল হাসান।


আপনার মন্তব্য