শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ জুলাই, ২০২১ ২৩:০৩

ফাইজার সিনোফার্মের গণটিকা শুরু

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে প্রবাসীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফাইজার সিনোফার্মের গণটিকা শুরু
Google News

কোভ্যাক্স থেকে আসা ফাইজার ও চীনের উপহার সিনোফার্মের টিকা দিয়ে শুরু হয়েছে গণটিকাদান। ফাইজার শুধু সাতটি কেন্দ্রে দেওয়া হয়েছে। তবে সিনোফার্মের টিকা দেশের সব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জেলা হাসপাতাল, সদর হাসপাতালে দেওয়া হয়েছে। ফাইজারের টিকা না পেয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে বিক্ষোভ করেছেন প্রবাসীরা। স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্যসচিব ডা. শামসুল হক বলেন, ‘তাপমাত্রার কারণে ফাইজারের টিকা পরিবহন করা কঠিন তাই আমরা কেবল রাজধানী ঢাকায় সাতটি কেন্দ্র নির্ধারণ করেছি। এর মধ্যে রয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল।’

তিনি বলেন, ‘অভিবাসী কর্মীদের টিকা নিতে গেলে অবশ্যই জনশক্তি উন্নয়ন ব্যুরোর মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করে তারপর আমাদের টিকা কার্যক্রমে আসতে হবে। জনশক্তি উন্নয়ন ব্যুরো প্রবাসী কর্মীদের জন্য একটি অ্যাপ তৈরি করেছে। অ্যাপের পাশাপাশি প্রতিটি জেলায় জনশক্তি উন্নয়ন ব্যুরোর অফিস থেকে অভিবাসীরা রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। জনশক্তি উন্নয়ন ব্যুরো রেজিস্ট্রেশন করার পর অভিবাসী কর্মীকে সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নিতে হবে। সুরক্ষা অ্যাপ থেকে পাওয়া টিকা কার্ড ছাড়া কেন্দ্রে গেলে দেওয়া সম্ভব হবে না।’ ইতিমধ্যে ২ লাখ প্রবাসীর তালিকা পেয়েছেন জানিয়ে শামসুল হক বলেন, ‘রবিবারের মধ্যে সে তালিকা যাচাই শেষ হবে। সোমবার রাত থেকে এসএমএস যাবে এবং মঙ্গলবার থেকে তারা টিকা নিতে পারবেন।’ রাজধানীর সাতটি কেন্দ্রে কুয়েত ও সৌদি প্রবাসীদের ফাইজার টিকা প্রয়োগের উদ্বোধন করা হয় গতকাল। উদ্বোধনের দিনেই কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে আসা প্রবাসীরা টিকা না পেয়ে বিক্ষোভ করেন। বেলা ১১টায় হাসপাতালটিতে গিয়ে দেখা যায় আন্দোলনরত প্রবাসীরা টিকা চাই, টিকা চাই স্লোগান দিচ্ছেন। এ সময় কেন্দ্রটিতে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। মন্ত্রী উপস্থিত প্রবাসীদের তোপের মুখে পড়েন। পরে বিক্ষুব্ধ এসব প্রবাসী শ্রমিককে শান্ত করেন প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন। ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন বলেন, শুধু কুয়েত ও সৌদি প্রবাসী কর্মীদের টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও উপস্থিত হন ইতালিসহ অন্যান্য দেশের প্রবাসীরা। তারা অভিযোগ করেন টিকা পেতে নিবন্ধন করা হয়েছে কিন্তু কোনো এসএমএস দেওয়া হয়নি। আবার অনেকে জানেন না কীভাবে নিবন্ধন করতে হবে। উপস্থিত প্রবাসীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আগামী সোমবার থেকে আপনারা সবাই “আমি প্রবাসী” অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।’ পরে মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, ‘সুরক্ষা অ্যাপ এখনো চালু হয়নি। রবিবার বা সোমবারের দিকে চালু হওয়ার কথা। আপনারা বিএমআইটিতে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে নিন। নাম আর পাসপোর্ট স্বাস্থ্য অধিদফতরে চলে যাবে। সেখানে বলে দেওয়া হবে কে কোন হাসপাতালে ভ্যাকসিন নেবেন।’