শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ জুলাই, ২০২১ ২২:৩৩

লকডাউনে ৩ হাজার ৬২৪ জন গ্রেফতার

বিধিনিষেধের মধ্যে সড়কে বাড়ছে মানুষ ও গাড়ির চাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক

লকডাউনে ৩ হাজার ৬২৪ জন গ্রেফতার
Google News

লকডাউনে কড়াকড়ির মধ্যেও সড়কে দিন দিন মানুষ ও যানবাহনের চলাচল বেড়েছে। রাজধানীতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের টহল ছিল চোখে পড়ার মতো। রাস্তার মোড়ে মোড়ে ছিল চেকপোস্ট। গতকাল ঢাকার রাস্তায় মানুষ ও গাড়ি চলাচল দেখা গেছে আগের ছয় দিনের তুলনায় বেশি। তবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও বিধিনিষেধ মানাতে ছিলেন তৎপর। বাইরে বের হওয়ার যৌক্তিক কারণে দেখাতে না পারায় গতকাল গ্রেফতার হয়েছেন ৫৬৮ জন। ২৩ জুলাই ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই লকডাউন চলবে ৫ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত। গতকাল রাজধানীর প্রধান সড়কগুলোতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের কঠোর তদারকি ছিল। বাইরে বের হওয়া লোকজন নানা জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হয়েছেন। তবু সড়কে মানুষ ছিল চোখে পড়ার মতো।

দুপুরে শাহবাগের সড়কে যানবাহন ও মানুষের চলাচল ছিল বেশি। এ ছাড়া বৃহস্পতিবার সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে ব্যাংক খোলা থাকায় বেশি সংখ্যক গাড়ি চলাচল করতে দেখা গেছে। তবে ব্যাংকের কাজে যাদের ব্যক্তিগত বা অফিসের গাড়ি ছিল না, তাদের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। পণ্যবাহী ট্রাক, রিকশা, মাইক্রোবাস, সিএনজি, মোটরসাইকেল ও অ্যাম্বুলেন্সও ছিল সড়কে অনেক বেশি। এ ছাড়া রাজধানীর বাংলামোটর, কারওয়ানবাজার, ফার্মগেট, কলাবাগান, ধানমন্ডি-৩২, সায়েন্স ল্যাব, মিরপুর রোড, এলিফ্যান্ট রোড, বিজয় সরণি, তেজগাঁও, মৎস্য ভবন এলাকা ঘুরেও একই চিত্র দেখা গেছে।

সড়কে দেখা যায়, হেঁটে, মোটরসাইকেলে, বাইসাইকেলে ও ব্যক্তিগত গাড়িতে করে বাইরে বের হয়েছে মানুষ। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে বাইরে আসা মানুষদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে। যারা অকারণে বাইরে বের হচ্ছেন, তাদের বিরুদ্ধে  ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, রাজধানীতে কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে পুলিশ টহল দিচ্ছে। তারা চেকপোস্ট বসিয়ে গাড়ি থামিয়ে বাইরে আসার কারণ জানতে চাইছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রমও অব্যাহত আছে। এ ছাড়া পুলিশের পাশাপাশি রাজধানীতে সেনাবাহিনী ও বিজিবি সদস্যরা বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে কাজ করছেন। কারওয়ানবাজার এলাকায় দায়িত্বরত একজন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর বলেন, অন্যান্য দিনের চেয়ে রিকশা ও ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ বেড়েছে। সাইকেলে করেও অনেক মানুষকে বাইরে বের হতে দেখা গেছে। আমরা সড়কে আছি, বাইরে বের হওয়া মানুষদের  জিজ্ঞাসাবাদ করছি। বাইরে বের হওয়া বেশির ভাগই যৌক্তিক কারণ দেখাচ্ছেন। আর যারা যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারছেন না, আমরা তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিচ্ছি।

লকডাউনের সাত দিনে ঢাকায় গ্রেফতার ৩৬২৪ : করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে ঈদের ছুটির পর শুরু হওয়া লকডাউনের প্রথম সাত দিনে রাস্তায় বেরিয়ে যৌক্তিক কারণ দেখাতে না পারায় ঢাকায় মোট ৩ হাজার ৬২৪ জনকে গ্রেফতারের কথা জানিয়েছে পুলিশ। এর মধ্যে গতকাল সপ্তম দিন বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ৫৬৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পাশাপাশি ২০৬ জনকে করা হয়েছে মোট ৩ লাখ ৪০ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা। ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ এদিন ৪৩১টি গাড়িকে মোট ৯ লাখ ৯৭ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছে। লকডাউন শুরুর প্রথম দিন গত শুক্রবার ঢাকায় গ্রেফতার হয়েছিলেন ৪০৩ জন। পরের পাঁচ দিন যথাক্রমে ৩৮৩ জন, ৫৮৭ জন, ৫৬৬ জন, ৫৫৫ জন ও ৫৬২ জন হয়েছেন। গতকাল সবচেয়ে বেশি ৫৬৮ জন গ্রেফতার হয়েছেন।