১১ ডিসেম্বর, ২০২২ ১৭:৩১

শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে : এনামুল হক শামীম

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে : এনামুল হক শামীম

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, শরীয়তপুর জেলাকে সন্ত্রাস, মাদক ও ইভটিজিংমুক্ত জেলায় গড়ে তুলতে হবে। এসব ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করতে হবে। সাধারণ মানুষ যাতে নিরাপদে নিশ্চিন্তে শান্তিতে ঘরে ঘুমাতে পারে সেই ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। 

তিনি বলেন, দেশবিরোধী গুজব প্রতিরোধে কাজ করতে হবে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুসারে আইনের শাসন বাস্তবায়ন করতে হবে। একটি আদর্শ যুব সমাজ দেশের সম্পদ। যুবরাই গড়তে পারে বাল্যবিবাহ, নারী নির্যাতন, ইভটিজিং, ধর্ষণ ও মাদকমুক্ত একটি নিরাপদ সমাজ। তাই যুব সমাজকে হতে হবে উদার, মানবিক, চরিত্রবান, নীতিবান, দায়িত্বশীল ও দক্ষ। নবীন প্রবীণ সকলে মিলে এক সাথে আমাদের যুব সমাজকে রক্ষা করতে হবে। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

আজ রবিবার সকালে শরীয়তপুর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এনামুল হক শামীম বলেন, ইউনিয়ন পরিষদগুলোকে আরও কার্যকর করতে হবে। বয়স্কভাতা, বিধবাভাতাসহ সকল সেবার মান আরও বাড়াতে হবে। সংশ্লিষ্ট বিভাগের জবাবদিহি করতে হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষকে নিয়ে ভাবেন। ‘গ্রাম হবে শহর’ এই চিন্তা নিয়ে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে। যেদিকে তাকাই সেদিকে উন্নয়নের ছোঁয়া। এটা মমতাময়ী মা শেখ হাসিনার অবদান। উন্নয়নের গতি অব্যাহত থাকলে এশিয়ার সেরা দেশ হবে বাংলাদেশ। দেশবিরোধী ও স্বাধীন বিরোধী একটি মহল প্রতিনিয়তই দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত করেই চলছে। তবে তারা সফল হবে না। কারণে, বাংলাদেশের মানুষ একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছেই নিরাপদ।

উপমন্ত্রী বলেন, জনগণের সেবায় নিজেদের আত্মনিয়োগ করে সেবক হয়ে কাজ করতে হবে। সবাই যাতে দ্রুত সময়ে ন্যায় বিচার পায় তা নিশ্চিত করতে হবে। জন্ম নিবন্ধন, সার্টিফিকেটসহ কোনো সেবা নিয়ে হয়রানি করা যাবে না। জনগণের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে। মানুষ যাতে তার অধিকার ও ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে। প্রকল্পের কাজ যাতে সঠিক সময়ে গুণগত মান ঠিক রেখে করা হয়, তার দিকে লাখ রাখতে হবে।

শামীম বলেন, বঙ্গবন্ধুর বীরকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। উন্নয়নের সবগুলো সূচক অর্জিত হওয়ার কারণে বাংলাদেশ ইতিমধ্যেই স্বল্প উন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। অর্থনৈতিক, সামাজিক, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও যোগাযোগসহ সব সূচকে বাংলাদেশ ইতিমধ্যে পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে গেছে। অনেক ক্ষেত্রে ভারতকেও আমরা ছাড়িয়ে গেছি। বিশ্বে এখন বাংলাদেশের নাম উচ্চারিত হয় অর্জনের জন্য, সাফল্যের জন্য। 

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বে অনন্য মর্যাদা পেয়েছে। তার আমলেই পদ্মাসেতু হয়েছে। শরীয়তপুরে এখন আর নদী ভাঙন নেই। বিদ্যুতেও আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণ। পদ্মার তলদেশ দিয়ে সাবমেরিন ক্যাবেলের মাধ্যমে দুর্গম চরাঞ্চলে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়া হয়েছে। শেখ হাসিনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন দিয়েছেন। তাই ফোর লেনের জন্য জনগণকে ধৈর্য্যধারণ করতে হবে। এই ফোর লেন আরও আগেই হওয়া উচিত ছিল। মাদারীপুরের মতো ২০০৯ সালে শুরু করলে এই ফোর লেনের কাজ আরও আগেই শেষ হয়ে যেতো। তবে আমরা (উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, ইকবাল হোসেন অপু এমপি ও নাহিম রাজ্জাক এমপি) ২০১৯ সালে থেকেই শরীয়তপুরে যাতে ফোর লেন হয় সে লক্ষে কাজ করেছি। এই সরকারের মেয়াদেই ফোর লেনের কাজ সম্পন্ন হবে। 

জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসানের সভাপতিত্বে সভায় পুলিশ সুপার সাইফুল হকসহ বিভিন্ন দপ্তরের ঊচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর