Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ২১:৫৪

অবৈধ ব্যবহারে বিদ্যুতের অপচয় হচ্ছে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

অবৈধ ব্যবহারে বিদ্যুতের অপচয় হচ্ছে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
ফাইল ছবি

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছেন, সমাজের কিছু অসাধু মানুষের অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারের কারণে বিদ্যুতের অনেক অপচয় হচ্ছে। সরকার এসব অবৈধভাবে বিদ্যুতের ব্যবহার ও অপচয় রোধকল্পে নানামুখি কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

বুধবার একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনের প্রথম দিন আলী আজমের (ভোলা-২) লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব তথ্য জানান। 

এসময় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, অবৈধভাবে বিদ্যুতের ব্যবহার ও অপচয় রোধে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধে টাস্কর্ফোস গঠন ও ঝটিকা অভিযান চলছে, পোস্ট পেইড মিটার পরিবর্তন করে ডিজিটাল ও প্রি-পেইড/স্মাট মিটার স্থাপন করা হচ্ছে, জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রচার করে বিদ্যুৎ চুরি ও অবৈধ ব্যবহার বন্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। 

সাংসদ আলী আজমের অপর এক প্রশ্নে জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের বিভিন্ন মেয়াদে অনুসন্ধানের পর ৪টি নতুন গ্যাস ক্ষেত্র আবিষ্কৃ হয়েছে। আবিষ্কৃত এলাকা গুলো হচ্ছে, শ্রীকাইল, সুন্দলপুর, রূপগঞ্জ ও ভোলা নর্থ। 

নোয়াখালী-২ আসনের এমপি মোরশেদ আলমের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ বলেন, সরকার আগামী ২০২১ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি গ্রাম ও পরিবারে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দিতে সচেষ্ট রয়েছে। একই সঙ্গে বিদ্যুতের উৎপাদন ক্ষমতা ২৪ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত করার মাধ্যমে গ্রাহক চাহিদা মেটানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ করছে। এর মধ্যে সরকার ও বেসরকারি খাতে মোট ২৮ হাজার ২৪৭ মেগাওয়াট ক্ষমতার ১৪৫টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের লক্ষ্যে চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে। ২০০৯ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ ২০১৯ পর্যন্ত মোট ১৩ হাজার ০৮৯ মেগাওয়াট ক্ষমতার ১১১টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র চালু হয়েছে। ভারতের বহরমপুর ও ত্রিপুরা থেকে মোট ১ হাজার ১৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডে তা যুক্ত হয়েছে। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য