Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৫ মে, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ মে, ২০১৮ ০২:১৫

খুলনায় বিএনপি নেতা-কর্মী গ্রেফতার না করার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

খুলনায় বিএনপি নেতা-কর্মী গ্রেফতার না করার নির্দেশ

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের গ্রেফতারসংক্রান্ত নির্দেশনা অমান্য করে খুলনায় বিএনপি নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের গ্রেফতার বা হয়রানি না করার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। একটি রিটের শুনানি করে গতকাল বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাই কোর্ট বেঞ্চ গতকাল এ আদেশ দেয়। খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচন সামনে রেখে দলের নেতা-কর্মীদের নির্বিচারে গ্রেফতারের অভিযোগ তুলে হাই কোর্টে রিট করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান। রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

ডিএজি সাজু সাংবাদিকদের বলেন, আদালত গ্রেফতারসংক্রান্ত আপিল বিভাগের নির্দেশনা ভঙ্গ করে খুলনায় গ্রেফতার বা হয়রানি না করার নির্দেশ দিয়েছে। পুলিশের মহাপরিদর্শক, খুলনার পুলিশ কমিশনার ও পুলিশ সুপারকে এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া খুলনার বিএনপি নেতা-কর্মী, সমর্থক, ভোটের প্রচারণাকারীদের গণগ্রেফতার, হয়রানি করা কেন অবৈধ ও আইনগত কর্তৃত্ববর্হিভূত ঘোষণা করা হবে— না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাই কোর্ট। স্বরাষ্ট্র সচিব, নির্বাচন কমিশন, পুলিশের মহাপরিদর্শক, খুলনার পুলিশ কমিশনার ও পুলিশ সুপারকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদেশের পর মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, খুলনায় বিএনপি নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে। এ ধরনের গণগ্রেফতার ও সাদা পোশাকে গ্রেফতার আইনের পরিপন্থী। একটি মামলায় সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ কতগুলো নির্দেশনা দিয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, কীভাবে কাকে কোন অবস্থায় গ্রেফতার করা যাবে এবং গ্রেফতার করার আগে এবং পরে কী ধরনের প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হবে তা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সুনির্দিষ্টভাবে নির্দেশ দেওয়া আছে। কিন্তু এ নির্দেশনার কোনো তোয়াক্কা না করে খুলনা সিটি করপোরেশন এলাকায় গণগ্রেফতারের তাণ্ডবলীলা চলছে। এটা বন্ধ করা প্রয়োজন। হাই কোর্টের এই নির্দেশনা বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে খুলনা সিটি করপোরেশনে নির্বাচনী পরিবেশ ফিরে আসবে বলে আশা করি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর