Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ মে, ২০১৯ ১৭:০৩

পর্তুগালে 'ভেজি ওয়ার্ল্ড'-এ অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ

পর্তুগাল প্রতিনিধি:

পর্তুগালে 'ভেজি ওয়ার্ল্ড'-এ অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ

পর্তুগালের লিসবনে অনুষ্ঠিত ইউরোপীয় নিরামিষ প্রেমীদের সবচেয়ে বড় উৎসব 'ভেজি ওয়ার্ল্ড ২০১৯'-এ অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ। এবারের আয়োজনে প্রায় ২০টি দেশ অংশ নিয়েছে। ইউরোপের দেশগুলো ছাড়াও এশিয়ার বাংলাদেশের পাশাপাশি কোরিয়া ও ভারত অংশ নেয়। 

৩০ টি স্টলে মুখরোচক বিভিন্ন খাবার, প্রসাধনী, ও ওষুধের পাশাপাশি ক্রেতা দর্শনার্থীদের মূল আকর্শণ ছিল উদ্ভিদ থেকে তৈরি দৈনন্দিন কাজে ব্যবহার্য নানা পণ্য। সম্পূর্ণ উদ্ভিদ নির্ভর এমন আয়োজনে অংশ নিয়ে উচ্ছ্বসিত ক্রেতা, বিক্রেতা ও দর্শনার্থীরা। 

জার্মান প্রোভেগ ইন্টারন্যাশনালের আয়োজনে লিসবনের বিখ্যাত প্রাসা দ্যা কমার্শিও'র পাতিও দ্যা গালের সম্মেলন কেন্দ্রে নিরামিষ প্রেমীদের জনপ্রিয় আয়োজন 'ভেজি ওয়ার্ল্ড' এর এটি দ্বিতীয় আসর ছিল।

প্রাণীজ আমিষ ও প্রাণিসম্পদের উপর সম্পূর্ণ নির্ভরতা কমিয়ে উদ্ভিজ্জ পণ্যের প্রতি উৎসাহ এবং বৈশ্বিক জলবায়ু মোকাবেলায় সচেতনতা বাড়াতেই ধারাবাহিক এই আয়োজন বলে জানান আয়োজক প্রতিষ্ঠানটি। 

ফেস্টিভালে নজর কেড়েছে বাংলাদেশি উদ্যোক্তা আহমেদ বিন রিয়াজের স্টল 'অ্যান্টহাউজ'। এন্টহাউজ' শতভাগ সবুজ একটি কোম্পানি। অর্গানিক নিকেল ফ্রি পোশাক, পরিবেশসম্মত ভেগান খাবার নিয়ে পর্তুগাল থেকে ২০১৮ সালে যাত্রা শুরু করে। বিভিন্ন বৈশ্বিক ফেস্টিভ্যাল ছাড়াও অনলাইনে পণ্য বিক্রি করে আসছে কোম্পানিটি। 

উদ্যোক্তা আহমেদ বিন রিয়াজ বলেন, পরিবেশসম্মত ন্যাচারাল পণ্যে মানুষকে সচেতন করে তোলা ও স্বাস্থ্যসম্মত ভেগান লাইফস্টাইলে উদ্ভুদ্ধ করা আমাদের উদ্দেশ্য। বিক্রয়ের বেশীরভাগ পণ্যই বাংলাদেশ থেকে আসছে বলে জানান তিনি। 
বৈশ্বিক আবহাওয়ার বিরুপ প্রতিক্রিয়া ও নিজেদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে ইউরোপে তরুণদের কাছে ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ভেগান খাবার ও লাইফস্টাইল। বলা চলে তরুণদের কাছে ভেগান লাইফস্টাইল বেশ সমাদৃত হচ্ছে সময়ের সাথে। 

যে সকল পণ্য মানুষের স্বাস্থ্যঝুঁকি মোকাবিলা করার সহায়ক প্রাকৃতিক উৎস থেকে উৎপাদন হয়ে থাকে, সাধারণত সে সকল পণ্যই আমাদের কাছে সবুজ পণ্য হিসেবে পরিচিত। পৃথীবির উৎপাদিত সকল পণ্যের মধ্যে প্রায় সিংহভাগই পরিবেশবান্ধন নয়। যেগুলোর আবার সিংহভাগের উৎপাদনে সরাসরি প্রাকৃতিক কোনো উৎসের সাহায্য ব্যাতীত উৎপাদিত হয়। অন্যদিকে পরিবেশবান্ধব সবুজ পণ্যের উৎপাদন হার ১৪.৭% শতাংশ। প্রতিবছর বৃদ্ধির হার শতকরা ৩%।

পৃথীবির জলবায়ুর বিরুপ আচরণের প্রেক্ষিতে ও মানুষের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে প্রাকৃতিক উৎস থেকে সবুজ পণ্যের উৎপাদন জরুরি হয়ে পড়েছে। তাই ভেজী ওয়ার্ল্ডের মতো আয়োজনগুলো সচেতনতা বাড়াতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করছে।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য