শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৫:৩৭

মালয়েশিয়া গ্লোবাল উম্মাটিক ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশের সাফল্য

মালয়েশিয়া প্রতিনিধি :

মালয়েশিয়া গ্লোবাল উম্মাটিক ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশের সাফল্য

মালয়েশিয়া আন্তর্জাতিক ইসলামিক ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল গ্লোবাল উম্মাটিক ফেস্টিভ্যাল ২০১৯। সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক এ উৎসবে বেস্ট কালচারাল এন্টারটেইনিং অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে বাংলাদেশ। 

সপ্তাহব্যাপী আয়োজিত এই উৎসবে অংশগ্রহণ করে বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব, নাইজেরিয়া, সোমালিয়া, তুরস্ক ও চীনসহ আরও অন্যান্য দেশের শিক্ষার্থীরা ।

ফেস্টিভ্যাল বাংলাদেশ স্টলটি আগত সকল দর্শনার্থীর নজর কাড়ে। নিজের দেশকে তুলে ধরতে শিক্ষার্থীরা স্টলটি সাজিয়েছিল অনেকটা রেল গাড়ির আদলে, যা দেশি এবং বিদেশি সকলের কাছে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে। এছাড়াও ঢেঁকি দিয়ে ধান ভাঙার দৃশ্য, পড়ন্ত বিকেলে ঘুড়ি উড়ানোর দৃশ্য, বাংলাদেশের অপরূপ বন-বৈচিত্র এবং দেশের রেলগাড়ির ভেতরের রোমাঞ্চকর পরিবেশ ফুটিয়ে তোলা হয় স্টলটির ভিতরে এবং বাহিরে ।

পাশাপাশি বিদেশিদের কাছে দেশের সংস্কৃতি ও লোক-ঐতিহ্য তুলে ধরতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা পরিবেশন করেন কালো জাম, রসগোল্লা, চানাচুর, শোন পাপড়ি ও চাসহ নানান মজাদার খাবার।

একই সঙ্গে এবারের মালয়েশিয়া আন্তর্জাতিক ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় এর মেধা অন্বেষণমূলক প্রতিযোগিতা আইআইইউএম গট ট্যালেন্ট এ চ্যাম্পিয়নশিপ অর্জন করেন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রাইয়ুন নাউফা আকবর। যিনি মাত্র ৫ মিনিটে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ের ওপরে অসাধারণ স্প্রে পেইন্টিং করে তাক লাগিয়ে দেন উৎসবে আগত সকল দেশি ও বিদেশিদের। এ উৎসবের সিস্টার্স নাইটে বাংলাদেশি মেয়েরা দেশিয় সাংস্কৃতিক নৃত্য পরিবেশন করে অর্জন করেছে দ্বিতীয় স্থান।

এই উৎসবের শেষ দিন ১২ ডিসেম্বর রাতে ওওটগ কালচারাল সেন্টারে সমাপনী অনুষ্ঠানেও বাংলাদেশ তার অসাধারণ সাংস্কৃতিক সমৃদ্ধতার স্বাক্ষর রেখেছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটির ডেপুটি রেক্টর ডক্টর নুর ফারিদা বিনতে আব্দুল মানাফ, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব পলিটিক্যাল রুহুল আমিন এবং দূতাবাসের দ্বিতীয় সচিব ফরিদ আহমেদসহ সোমালিয়া, তুরস্ক ও অন্যান্য দেশের রাষ্ট্রদূতগণ। 

মোট ১২ টি দেশের সাংস্কৃতিক পরিবেশন থেকে সেরা পাঁচে আসে বাংলাদেশ। সেরা পাঁচের মধ্যে বাংলাদেশের পরিবেশিত দেশাত্মবোধক নৃত্য, দেশের মেধাবী ও গুণীদের পরিচিতিমূলক উপস্থাপনন ও বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের দেশপ্রেম- এই উৎসবকে করেছে ব্যতিক্রমধর্মী ও অনন্যসাধারণ। অনুষ্ঠানে আগত প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথিসহ সকল শিক্ষার্থীরা অত্যন্ত আনন্দের সাথে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা উপভোগ করেন। 'সেরা বিনোদনমূলক সাংস্কৃতিক পরিবেশনা' উপহার পাওয়ার পরে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা আনন্দে ফেটে পড়েন।

এদিকে, এ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘আইআইইউএম বাংলাদেশ কমিউনিটি' থেকে বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে মুখ্য ভূমিকা রাখেন তরিকুল ইসলাম, শেখ রিফাত রিয়াজ, আসিফ জামিল, সায়েদ মুহসীন, নাজমুস সাকিব, মোহাম্মদ মুহিবসহ কালচারাল টিমের লিড ও কোরিওগ্রাফার সাব্বির সালেহীন ও তানভীর আরেফিন প্রমুখ।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

close