Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:২৪

প্রতিপক্ষ যেখানে ডেঙ্গু!

এসএ গেমসের ক্যাম্প

ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রতিপক্ষ যেখানে ডেঙ্গু!

সামনে নেপালের কাঠমা-ুতে সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমস। এর আগে ১৯৮৪ ও ১৯৯৯ সালে কাঠমা-ুতে এ গেমসের আসর বসে। বাংলাদেশ এবার কটি ডিসিপ্লিনে অংশ নেবে তা নিশ্চিত নয়। তবে সাঁতার, অ্যাথলেটিকস, আরচারি, ভারোত্তোলন, কুস্তি, কাবাডি ও খো খোতে অংশ নেবেই। কিছু ইভেন্টের ক্যাম্পও শুরু হয়ে গেছে। কিন্তু স্বস্তিতে নেই তারা। সবার ভিতরে একটা আতঙ্ক বিরাজ করছে। আর তা হলো ডেঙ্গু। ক্যাম্পে এডিস মশা আছে কিনা এ নিয়ে ক্রীড়াবিদদের দুশ্চিন্তার শেষ নেই। খো খো, কাবাডি ও বাস্কেট বলের বেশ কজন খেলোয়াড় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। ডেঙ্গু আতঙ্কে অনেকের রক্ত পরীক্ষা করা হচ্ছে। বাংলাদেশ খো খো ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অভিজ্ঞ সংগঠক ফজলুর রহমান বাবুল বলেছেন, সত্যিই ক্যাম্পে ডেঙ্গু আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে। গেমস দ্বারপ্রান্তে। এখন অনুশীলনটা জরুরি। কিন্তু সবার ভিতরে ভয় এমনভাবে ঢুকে গেছে যে মনোযোগসহকারে অনুশীলন করা যাচ্ছে না। জানি না এ আতঙ্ক কাটবে কবে। ১৯৮৪ সাল থেকে সাউথ এশিয়ান গেমসে পদক তালিকায় শীর্ষে থাকে ভারত। এবারও তারা সেই অবস্থান ধরে রাখবে। ভারতকে টপকানোর সাধ্য কারও নেই। বাংলাদেশের অবস্থান কোথায় থাকবে? গেমস ইতিহাসে ২০১০ সালে বাংলাদেশ ১৮টি সোনার পদক জিতে। গতবার আসে চারটি। এবার কি যে করবে বলা মুশকিল। কেননা বাংলাদেশের প্রতিযোগীরা লড়বেন কি? অনুশীলনেই তো তাদের প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছে ডেঙ্গু। বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন এ ব্যাপারে সতর্ক। চিকিৎসকও নিয়োগ দিয়েছে। সন্দেহ জাগলেই চেকআপ করা হচ্ছে। তবে ডেঙ্গু আতঙ্ক দূর হচ্ছে না।


আপনার মন্তব্য