শিরোনাম
প্রকাশ : ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১২:৫৫
আপডেট : ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৫:২৫

আনন্দবাজারের প্রতিবেদন

'সারে জাহা সে আচ্ছা' গাইলেন পাকিস্তানি রাজনীতিবিদ, জানালেন নিজের মতামত

অনলাইন ডেস্ক

'সারে জাহা সে আচ্ছা' গাইলেন পাকিস্তানি রাজনীতিবিদ, জানালেন নিজের মতামত
আলতাফ হুসেন

আন্তর্জাতিক স্তরে এখনও ভারতকে কোণঠাসা করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কিন্তু জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে এবার ভিন্ন উঠে এলো তারই দেশের এক রাজনীতিকের কণ্ঠে। 

জম্মু-কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে মেনে নিলেন তিনি। সেই সঙ্গে ‘সারে জাহা সে আচ্ছা, হিন্দোস্তাঁ হমারা’ গেয়েও শোনালেন।

ইমরান খানের অস্বস্তি যিনি বাড়িয়েছেন, তিনি আর কেউ নন, মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা আলতাফ হুসেন। ইসলামাবাদের উপত্যকা নীতির বরাবরের সমালোচক তিনি। এই মুহূর্তে লন্ডনে রাজনৈতিক আশ্রয়ে রয়েছেন তিনি। 

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর সেখানে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন আলতাফ হুসেন। তিনি বলেন, '৩৭০ ধারা বাতিল একেবারেই ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। মানুষের সমর্থনেই ভারত সরকার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে।'

আলতাফ আরও বলেন, ‘জম্মু-কাশ্মীরে আক্রমণ চালাতে পাকিস্তানের জনজাতি সম্প্রদায়কে ব্যবহার করে পাকিস্তান। হামলা চালাতে তাদের হাতে অস্ত্র তুলে দেয়। উপত্যকার দখল পেতেও তাদের ব্যবহার করে। এর পরেই ভারতের দ্বারস্থ হন রাজা হরি সিংহ। কাশ্মীরকে ভারতের সঙ্গে যুক্ত করেন।’

উপত্যকার দখল পেতে পাকিস্তান সরকার কাশ্মীরবাসীকে ব্যবহার করছে বলেও অভিযোগ তোলেন আলতাফ হুসেন। তার কথায়, ‘উপত্যকার জন্য ভারতের সঙ্গে চার-চার বার যুদ্ধ করেছে পাকিস্তান। প্রতিবারই পরাজিত হয়েছে। তার পরেও ভারতের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ করেনি। লাগাতার ভারতে জিহাদি অনুপ্রবেশ ঘটিয়েছে।  নিজেদের স্বার্থসিদ্ধি করতে নিরীহ কাশ্মীরবাসীকে ব্যবহার করছে পাকিস্তান। তাদের এমন পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে, যেখানে পাকিস্তানের পতাকা হাতে তুলে নেয়া ছাড়া আর কোনও উপায় থাকবে না তাদের কাছে।’

সংখ্যালঘু বালোচ, পাখতুন, সিন্ধি এবং গিলগিটদের উপর পাকিস্তান সেনাবাহিনী নির্মম অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলেন আলতাফ হুসেন। তার দাবি, ভারত ও পাকিস্তান এক সঙ্গে স্বাধীনতা লাভ করলেও, নিজের দোষেই আজ পাকিস্তান সব ক্ষেত্রে ভারতের থেকে পিছিয়ে। এর পরই ‘সারে জাহা সে আচ্ছা, হিন্দুস্তান হমারা’ গাইতে শুরু করেন তিনি। সেই ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর