৯ নভেম্বর, ২০২১ ১৭:৫৭

ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে দুর্ব্যবহার; চালক গেলেন জেলে, মোটরসাইকেল থানায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে দুর্ব্যবহার; চালক গেলেন জেলে, মোটরসাইকেল থানায়

সিলেটে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানকালে নির্বাহী ম্যাজেস্ট্রেটের সঙ্গে দুর্ব্যবহার ও সরকারি কাজে বাঁধা দেওয়ার অপরাধে দু'জনকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এসময় তাদের বহনকারী মোটরসাইকেল আটক করে থানায় নেয়া হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত দুইজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তারা নিজেদের জেলা ছাত্রলীগকর্মী বলে পরিচয় দিয়েছে। 

মঙ্গলবার নগরীর আম্বরখানায় সিলেট সিটি কর্পোরেশন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমান খানের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন তারা। 

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- নগরীর মিরাবাজার আগপাড়া মৌসুমী-৮২ এর বাসিন্দা হোসেন চৌধুরীর ছেলে মাজেদ আহমদ (২৭) ও মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার চন্ডিনগর গ্রামের গৌছ উদ্দিনের ছেলে তারেক আহমদ (৩০)।

জানা গেছে, মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে আম্বরখানায় সিসিকের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমান খাঁন। এসময় রেজিস্ট্রেশনবিহীন একটি মোটরসাইকেল রাস্তায় অবৈধভাবে পার্কিং করেন মাজেদ আহমদ। এসময় মাজেদকে জরিমানা করতে গেলে তিনি ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমানের সঙ্গে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেন। এছাড়াও মাজেদ ফোন করে তারেক আহমদ নামের তার এক সহযোগীকে নিয়ে আসেন। দুজনে মিলে ম্যাজিস্ট্রেটকে হুমকি পর্যন্ত দেন। পরে ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমান পুলিশের সহায়তায় তাদের আটক করে সিটি কর্পোরেশনে নিয়ে যান। বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এ দুজনকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

কোতোয়ালি থানার শাহজালাল তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই আব্দুর রহিম জানান, মাজেদ ও তারেক সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান করেছেন। এছাড়াও ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে চরম ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেছেন। যার ফলে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেছেন।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর