২৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৯:১৮

আলোচিত সায়মন হত্যাকাণ্ড, পাঁচজনের নামে চার্জশিট

সাইফুল ইসলাম বেগ, বিশ্বনাথ (সিলেট)

আলোচিত সায়মন হত্যাকাণ্ড, পাঁচজনের নামে চার্জশিট

ইমরান আহমদ সায়মন

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার আলোচিত ‘সায়মন’ হত্যা মামলায়, খুনিসহ পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দিয়েছে থানা পুলিশ। চার্জশিটে প্রধান অভিযুক্ত এনাম উদ্দিন, তার এক সহযোগী ও ভিকটিমের তিন বন্ধুকে অভিযুক্ত করা হয়। ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততার প্রমাণ না পাওয়ায়, অব্যাহতি দেয়া হয় এ ঘটনায় গ্রেফতার এক বৃদ্ধকে।

সিলেট সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা, থানা পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর অরূপ সাগর গুপ্ত কমল।

চার্জশিকে অভিযুক্তরা হলেন, একই গ্রামের মনোহর আলীর ছেলে খুনি এনাম উদ্দিন (২৩), তার সহযোগী মোস্তাব আলীর ছেলে তাহিদ আলী (২৪), ভিকটিমের বন্ধু, আব্দুল মছব্বিরের ছেলে আফজাল হোসেন লায়েক (১৯), মৃত তাহির উল্লাহর ছেলে ফয়েজ আহমদ (২৩) ও তোরাব আলীর ছেলে তারেক আহমদ (২০)। অব্যাহতি দেয়া হয়, মামলায় গ্রেফতার একই গ্রামের মৃত মনা উল্লাহর ছেলে উস্তার আলী (৬৫) কে।

প্রসঙ্গত, গেল ২০ মার্চ রাত ১০টায় উপজেলা পরিষদ সড়ক এলাকায় ছুরিকাঘাতে খুন হন ইরমান আহমদ সায়মন (২৪) নামের ব্যবসায়ী যুবক। তিনি পৌরসভার জানাইয়া দক্ষিণ মশুলা গ্রামের মছলন্দর আলীর ছেলে। এ ঘটনায় তার বড় ভাই ময়নুল ইসলাম সুমন অভিযুক্ত পাঁচজনকে আসামি করে মামলা (নাম্বার-২৭, তাং-২২.০৩.২১) দেন। মামলায় প্রথমে গ্রেফতার করা হয় ভিকটিমের সঙ্গীয় বন্ধু লায়েক, ফয়েজ ও তারেককে। আত্মগোপনে চলে যায় খুনি এনাম ও তার সহযোগী তাহিদ। ক’দিন পর গ্রেফতার হয় তাহিদ। পরে ঘটনার এক সপ্তাহের মাথায় গ্রেফতার করা হয় খুনি এনামকেও। তার দেয়া স্বীকারোক্তিতে উদ্ধার করা হয়, হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা ছোরা।

সূত্র জানায়, ঘটনার দিন সন্ধ্যায় সায়মনকে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে ডেকে নিয়ে আসে তিন বন্ধু লায়েক, ফয়েজ ও তারেক। সদরের একটি রেস্তুরায় খাবার শেষে আল-হেরার সামনে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। পরে তারা সায়মনকে নিয়ে, ঘটনাস্থল উপজেলা পরিষদ সড়ক এলাকায় শুকুর আলীর বাড়ী সংলগ্ন রাস্তায় পৌঁছায়। ওখানে এনাম ও তাহিদের সাথে তাদের সাক্ষাত ঘটে। এক
পর্যায়ে শুকুর আলী ভাড়াটিয়া সুমি বেগম নামের জনৈক নারীকে নিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে খুনি এনাম সায়মনকে ছুরিকাঘাত করে। পরে সবাই মিলে পরিকল্পিত এ ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ঘটনাকে ছিনতাইয়ের নাটক সাজায়।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর