২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০২

সিলেটে পরিবহন শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেটে পরিবহন শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার

সিলেটে পরিবহন শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

সিলেটে নেতাদের উপর দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন পরিবহন শ্রমিকরা। বৃৃহস্পতিবার রাত সোয়া সাতটার দিকে পরিবহন শ্রমিক নেতাদের উপর আরেক শ্রমিকের দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার ও এসএমপি কমিশনারের অপসারণের দাবিতে আন্দোলন করেন তারা।

অবশ্য পরে প্রশাসনের সাথে বৈঠকের পর শ্রমিক নেতারা অবরোধ প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। দক্ষিণ সুরমার হুমায়ুন রশীদ চত্বরে এ বৈঠক শেষে রাত সোয়া ১০টার দিকে অবরোধ প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয়।

জানা যায়, গত ১৪ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ সুরমা থানায় মারপিট ও টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন লেগুনা শ্রমিক মো. শাহাব উদ্দিন। এতে আসামি করা হয় সিলেট জেলা বাস মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মইনুল ইসলাম, সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাকারিয়া আহমদ, হিউম্যান হুলার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল মিয়া মইনসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে। মামলা দায়েরের ৮ দিন পর বিষয়টি নজরে আসে শ্রমিক নেতাদের। বিষয়টি জেনে এসএমপি পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফের সঙ্গে দেখা করতে যান শ্রমিক নেতারা। এসময় পুলিশ কমিশনার তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ করেছেন সিলেট জেলা বাস মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মইনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘আমাদের নামে মামলা হয়েছে জেনে শ্রমিক নেতারা এসএমপি কমিশনারের সঙ্গে দেখা করেন। এসময় তিনি তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করেছেন। যা আমাদের শ্রমিকরা মেনে নেয়নি। তারা বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করে ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছে। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে। মামলা প্রত্যাহার ও এসএমপি কমিশনারের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘যিনি আমাদের নামে মামলা করেছেন তাকে আগেই শ্রমিক সমিতি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এই কারণে তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে আমাদের নামে চাঁদাবাজি ছিনতাইয়ের অভিযোগে মিথ্যে মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত ছাড়াই গ্রহণ করা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুরমা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন কুমার চৌধুরী বলেন, ‘শ্রমিক নেতারা পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন। এ নিয়ে থানায় দুটি মামলা হয়েছে। পুলিশ মামলাগুলো তদন্ত করছে। মামলার এতদিন পর পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলন অযৌক্তিক।’

তবে রাত সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে বৈঠকে বসার সিদ্ধান্ত হয়। রাত পৌনে ১০টার দিকে আন্দোলনরত শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে হুমায়ুন রশিদ চত্বরের একটি স্থানে বসেন সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ, উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) সোহেল রেজা ও দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি কামরুল হাসান তালুকদার। বৈঠকে প্রশাসনের কর্মকর্তারা শ্রমিক নেতাদের দাবি মানার আশ্বাস দিলে সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর