শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৯:৪৬
আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১০:২৮

আল্লামা শফীর জানাজা ঘিরে চট্টগ্রামের ৪ উপজেলায় ১০ প্লাটুন বিজিবি, সতর্ক প্রশাসন

অনলাইন ডেস্ক

আল্লামা শফীর জানাজা ঘিরে চট্টগ্রামের ৪ উপজেলায় ১০ প্লাটুন বিজিবি, সতর্ক প্রশাসন
আল্লামা শফী। ফাইল ছবি

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর জানাজাকে কেন্দ্র করে যে কোনো ধরনের ‘অনভিপ্রেত’ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসন সাত ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ১০ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করেছে। এর মধ্যে হাটহাজারী উপজেলায় চার ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে চার প্লাটুন এবং ফটিকছড়ি, রাঙ্গুনিয়া ও পটিয়া উপজেলার প্রতিটিতে একজন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে দুই প্লাটুন করে বিজিবি মোতায়েন থাকবে।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের রুটিন দায়িত্বে থাকা ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি স্বাক্ষরিত এক আদেশে ম্যাজিস্ট্রেট ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ম্যাজিস্ট্রেট ও বিজিবি মাঠে অবস্থান গ্রহণ করার কথা বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও এনডিসি মাসুদ রানা বলেন, ‘জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন স্যার করোনায় আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে থাকায় রুটিন দায়িত্বে থাকা ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি স্যার ম্যাজিস্ট্রেট ও বিজিবি মোতায়েনের আদেশ দিয়েছেন। সকাল ৮টা থেকে উনারা পুলিশসহ অন্যান্য বাহিনীকে আইনানুগ নির্দেশনা দেবেন।’

এর মধ্যে হাটহাজারীতেই কেবল চারজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এর হলেন হাটহাজারীর সহকারী কমিশনার (ভূমি) শরীফ উল্লাহ, আগ্রাবাদ সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবদুস সামাদ শিকদার, চান্দগাঁও সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মামনুন আহমেদ অনীক এবং চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার মো. উমর ফারুক।

অন্যদিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় দায়িত্ব পালন করছেন রাঙ্গুনিয়ার নির্বাহী সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফখরুল ইসলাম, পটিয়ায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ ইনামুল হাছান এবং ফটিকছড়িতে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার গালিব চৌধুরী।

এদিকে র‍্যাব-৭-এর কর্মকর্তারা জানান, যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি ঠেকাতে তারাও সতর্ক রয়েছেন। তাদের টহল টিম এলাকায় সক্রিয় রয়েছে। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে র‍্যাবের ১৫ থেকে ১৭টি টহল টিম মাঠে থাকবে।

অপরদিকে হাটহাজারী থানা পুলিশের পাশাপাশি জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। হাটহাজারী মাদ্রাসায় ছাত্র আন্দোলন শুরুর পর থেকে জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হকসহ চট্টগ্রাম রেঞ্জ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা হাটহাজারী পরিদর্শনের পাশাপাশি অবস্থানও করছেন।

একজন শীর্ষস্থানীয় গোয়েন্দা কর্মকর্তা জানান, ‘যে কোন মূল্যে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে আমরা অবস্থান নিয়েছি। সরকারের সর্বোচ্চ মহলের সতর্ক দৃষ্টি রয়েছে। সবকটি সংস্থা আমরা একযোগে কাজ করছি। আশা করছি সব কিছু সুন্দরভাবে সম্পন্ন হবে। একজন সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলেমের শেষ যাত্রায় সবাই তাকে সম্মান জানাবেন।’

আল্লামা শফী শুক্রবার ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টায় হাটহাজারী মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।
 
সূত্র : চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর