শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ অক্টোবর, ২০২০ ২১:২৭

ভিত্তিপ্রস্তরের অপেক্ষায় সিএমওএসএইচ ক্যান্সার হাসপাতাল

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম:

ভিত্তিপ্রস্তরের অপেক্ষায় সিএমওএসএইচ ক্যান্সার হাসপাতাল

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল এবং চট্টগ্রাম মা-শিশু ও জেনারেল হাসপাতালে প্রতিদিনই গড়ে অন্ত-বহির্বিভাগে দুই শতাধিক ক্যান্সার আক্রান্ত রোগী সেবা গ্রহণ করে। কিন্তু এর বাইরে অনেক রোগী অন্ত বিভাগে শয্যা না পেয়ে এবং বহির্বিভাগে সুযোগ না পেয়ে চিকিৎসা বঞ্চিত হচ্ছে।     

তাছাড়া বর্তমানে চট্টগ্রামে নেই কোনো ক্যান্সার গবেষণা কেন্দ্র। ক্যান্সার চিকিৎসায় এমন সংকট ও ভয়াবহ পরিস্থিতিতে চট্টগ্রাম মা-শিশু হাসপাতালে ‘সিএমওএসএইচ ক্যান্সার হাসপাতাল ও রিসার্চ ইনস্টিটিউট’ নামে আন্তর্জাতিক মানের একটি ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। এখন অপেক্ষার প্রহর গুনছে প্রধানমন্ত্রীর হাতে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের। আগামী নভেম্বর মাসে প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ মত সময় চেয়ে ক্যান্সার হাসপাতাল বাস্তবায়ন কমিটি প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে আবেদন করেছে।     

জানা যায়, মা ও শিশু হাসপাতাল ক্যান্সার গবেষণা প্রতিষ্ঠান নির্মাণে ২০১৫ সালে উদ্যোগ নেয়। ইতোমধ্যে দেয়া হয়েছে সরকারি ১০ কাঠা জায়গা। অনুমোদন দিয়েছে পারমানবিক শক্তি কমিশন এবং পরিবেশ অধিদপ্তর। ১০ তলা বিশিষ্ট প্রস্তাবিত ভবনের নকশার অনুমোদন দিয়েছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। দেশের শীর্ষ স্থানীয় ক্যান্সার বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মতে চুক্তি করা হয়েছে প্রায় ৩০ কোটি টাকা মূল্যের রেডিওথেরাপি মেশিনের। এখন অপেক্ষা ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন।

ক্যান্সার হাসপাতাল বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব মো. রেজাউল করিম আজাদ বলেন, ‘চট্টগ্রামে একটি আন্তর্জাতিকমানের ক্যান্সার চিকিৎসা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট নির্মাণে ২০১৫ সালে উদ্যোগ নেয়া হয়। প্রয়োজনীয় জায়গা, রেডিওথেরাপি মেশিন ক্রয় চুক্তি, ভবনের নকশা, পারমানবিক শক্তি কমিশন এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমোদন পাওয়া গেছে। এখন চট্টগ্রামবাসীর প্রাণের দাবি, আন্তর্জাতিকমানের এ ক্যান্সার চিকিৎসা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতেই হোক। এ ব্যাপারে আমরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আবেদন করেছি। আমাদের প্রত্যাশা, প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামবাসীর এ আশা পূরণ করবেন।’

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম মোরশেদ হোসেন বলেন, ‘১২০ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০ তলা বিশিষ্ট ৫৫ হাজার বর্গফুটের আন্তর্জাতিকমানের ক্যান্সার হাসপাতাল ও রিসার্চ ইনস্টিটিউট নির্মাণে প্রাথমিক প্রক্রিয়া শেষ। বৃহত্তর চট্টগ্রামের এটিই হবে জনগণের টাকায় জনগণের চিকিৎসার বৃহত্তম কেন্দ্র।’     

শিশু হাসপাতালের আজীবন সদস্য ফোরামের সদস্য সচিব ম. মাহমুদুর রহমান শাওন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ২০১৩ সালে নবনির্মিত ১৪ ভবনটির ভিত্তিপ্রস্তুর করেছিলেন। হাসপাতালের ১০ হাজার আজীবন সদস্যদের প্রাণের দাবি, ক্যান্সার হাসপাতালটিরও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন যেন প্রধানমন্ত্রী করেন। এর মাধ্যমে চট্টগ্রাম পাবে একটি বিশ্বমানের ক্যান্সার রোগের চিকিৎসা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট।’

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর