শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ মে, ২০২১ ১৫:০০
আপডেট : ১২ মে, ২০২১ ১৯:১৬
প্রিন্ট করুন printer

বাবুলের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল, মামলার পর জানালেন মিতুর বাবা

অনলাইন ডেস্ক

বাবুলের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল, মামলার পর জানালেন মিতুর বাবা
মাহমুদা খানম মিতু-বাবুল আক্তার
Google News

মেয়ে মাহমুদা খানম মিতুকে হত্যার ঘটনায় তার স্বামী বাবুল আক্তারের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন। এরপর সাংবাদিকদের তিনি জানিয়েছেন, বাবুল আক্তারের সঙ্গে এক এনজিও কর্মীর পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল।

আজ বুধবার দুপুরে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানায় বাবুলসহ আটজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করার পরে মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকদের এ তথ্য বলেন। তিনি আরও বলেন, পরকীয়ার বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় তার মেয়ের সঙ্গে বাবুলের ঝগড়া হয়। মৃত্যুর আগে মিতু বিষয়টি তাদের জানিয়েছিলেন। পারিবারিকভাবে তারা বিষয়টি সমাধানেরও চেষ্টা করেছেন। কিন্তু সফল হননি। একপর্যায়ে বাবুল ও ওই নারী মিতুকে মেরে ফেলার হুমকি দেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

মোশাররফ হোসেন তার মামলায় বাবুলসহ আটজনকে আসামি করেছেন। বাকি সাতজনের নাম আগের মামলায় পুলিশের তদন্তে এসেছিল। তারা হলেন কামরুল সিকদার মুসা, এহতেশামুল হক ভোলা, মোহাম্মদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ আনোয়ার, মোহাম্মদ শাহজাহান, মোহাম্মদ সাজু ও মোহাম্মদ কালু।

মোশাররফ হোসেন আরও বলেন, বাবুলের পরিকল্পনায় আসামিরা তার মেয়েকে হত্যা করেন। ২০১৩ সালে বাবুল যখন কক্সবাজারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে কর্মরত ছিলেন, তখন এনজিওর এক মাঠকর্মীর সঙ্গে তার সম্পর্ক হয়। 

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে পাঁচলাইশ থানার ও আর নিজাম রোডে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে বাসার অদূরে গুলি ও ছুরিকাঘাত করে খুন করা হয় মিতুকে। এই ঘটনায় বাবুল আক্তার বাদী  হয়ে পাঁচলাইশ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছিলেন। আজ বুধবার বাবুলকে এক নম্বর আসামি করে মামলা করেছেন মিতুর বাবা। 


বিডি প্রতিদিন/ফারজানা

এই বিভাগের আরও খবর