শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ জুলাই, ২০১৯ ২২:৩৩

ঘাতক মোখলেছের জানাজা ও দাফনে এলাকাবাসীর বাধা

কুমিল্লা প্রতিনিধি

ঘাতক মোখলেছের জানাজা ও দাফনে এলাকাবাসীর বাধা
তিনজনকে হত্যার পর গণপিটুনিতে ঘাতক মোখলেছুরও নিহত হন।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা। লাশ বহনকারী পিকআপ থেকে একে একে চারটি লাশ বের করা হয়। এসময় লাশের স্বজনদের আহাজারি আর আর্তনাদে ভারি হয়ে ওঠে পরিবেশ। রাস্তার দুই পাশে হাজার হাজার নারী-পুরুষের চোখেও ছলছল পানি। অশ্রুসিক্ত বিদায় জানাতে প্রস্তুত এলাকাবাসী। মানুষের গভীর ভালোবাসা যেন জমা পড়েছে নির্মমভাবে নিহত মা-ছেলে ও এক নারীর প্রতি। তেমনি ঘৃণা আর নিন্দার ঝড়ে ভাসছে ঘাতক মোখলেছ। উপস্থিত জনতা যখন ঘাতক মোখলেছের লাশ দেখতে পায় তখনই বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। তারা এ এলাকায় ঘাতক মোখলেছের জানাজা ও লাশ দাফনের তীব্র প্রতিবাদ ও বাধা প্রদান করেন। লাশ দাফন না করার প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ করেন। 

পরে দেবিদ্বার থানার ওসি মো. জহিরুল আনোয়ারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ উত্তেজিত এলাকাবাসীকে শান্ত করেন। তিনি নিহতদের আত্মীয়-স্বজনদের সাথে কথা বলে ঘাতক মোখলেছের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন করেন।

এ ব্যাপারে ওসি মো. জহিরুল আনোয়ার বলেন, প্রথমে বিক্ষুব্ধ জনতা ঘাতক মোখলেছের লাশ ও দাফন কাজে বাধা প্রদান করেন। পরে পুলিশের সহায়তায় ছেছড়াপুকুরিয়া গ্রামের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বুধবার সকালে রিকশাচালক মোখলেছুর রহমান ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এক শিশু ও দুই নারীকে কুপিয়ে হত্যা করে। পরে উত্তেজিত জনতা তাকে পিটিয়ে হত্যা করে।   

বিডি-প্রতিদিন/১১ জুলাই, ২০১৯/মাহবুব


আপনার মন্তব্য