শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০২০ ১৪:৪৬
আপডেট : ২১ অক্টোবর, ২০২০ ১৪:৪৮

দাবি আদায় না হলে যাত্রীবাহী লঞ্চও ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:

দাবি আদায় না হলে যাত্রীবাহী লঞ্চও ধর্মঘটের হুঁশিয়ারি

নৌযান শ্রমিকদের নিয়োগপত্র প্রদান, বেতন-ভাতা বৃদ্ধিসহ ১১ দফা দাবিতে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত হচ্ছে। দাবি আদায় না হলে যাত্রীবাহী লঞ্চও ধর্মঘট পালনের পরিকল্পনা রয়েছে বলে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে। 

নৌযান শ্রমিকরা ধর্মঘট করায় বরিশাল নদী বন্দরের আশপাশের এলাকায় কীর্তনখোলা নদীতে নোঙ্গর করে রয়েছে অর্ধশতাধিক পন্য ও জ্বালানিবাহী জাহাজ। এ কারণে পন্য ওঠা-নামা বদ্ধ রয়েছে। পন্য সরবরাহ বন্ধ থাকায় বাজারে বিরূপ প্রভাব পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। 

অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট সফল করতে বুধবার দ্বিতীয় দিন সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর কেডিসি ঘাট এলাকায় কীর্তনখোলা নদীর তীরে বিক্ষোভ মিছিল করে ধর্মঘটি নৌযান শ্রমিকরা। 

এ সময় তারা নৌযান শ্রমিকদের নিয়োগপত্র প্রদান, বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, খাদ্যভাতা প্রদান, নৌপথে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি বন্ধ এবং ভারতগামী জাহাজের শ্রমিকদের ল্যান্ডিং পাস প্রদানসহ ১১ দফা বাস্তবায়নের দাবি জানান। এই দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত লাগাতার ধর্মঘট চলবে বলে জানিয়েছেন তারা। 

নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন বরিশাল আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি শেখ আবুল হাসেম জানান, ১১ দফা দাবিতে গত দেড় বছরে ৩ বার ধর্মঘট পালন করেন তারা। প্রতিবারই সরকার এবং মালিক পক্ষ দাবী পূরনের আশ্বাস দেয়। সব শেষ গত বছরের অক্টোবরে দাবি পূরনের আশ্বাসে ধর্মঘট স্থগিত করেন তারা। কিন্তু আজ পর্যন্ত তাদের দাবি আদায় হয়নি। এ কারণে পন্য ও জ্বালানিবাহী নৌযানে আবার অনির্দষ্টিকালের শ্রমিক ধর্মঘট শুরু করেছেন তারা। দাবি আদায় না হলে যাত্রীবাহী জাহাজেও ধর্মঘট পালনের পরিকল্পনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর