শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর, ২০২০ ১৮:০৪
প্রিন্ট করুন printer

নারায়ণগঞ্জে আগুনে ৩৬ বসতঘর পুড়ে ছাই, খোলা আকাশের নিচে পরিবার

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জে আগুনে ৩৬ বসতঘর পুড়ে ছাই, খোলা আকাশের নিচে পরিবার

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার মুসলিম নগরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৩৬টি টিনের তৈরি বসতঘর পুড়ে ছাই গেছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ফতুল্লার উত্তর নরসিংপুর-মুসলিম নগর সীমাবর্তী এলাকায় গিয়াস উদ্দিনের ভাড়াটিয়া বাড়িতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ ও বিসিক ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হলেও তার আগেই ৩৬টি ঘরসহ ঘরে থাকা আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এতে বিপাকে পড়েছেন সর্বস্ব হারানো এই পরিবারগুলো। দিনভর খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করে দিশেহারা তারা। শিশু সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে কোথায় যাবেন, সেটা নিয়ে হতাশায় ভুগছে পরিবারগুলো। শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) আগুনে পুড়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে গেলে এমন দৃশ্য দেখা যায়।

আজ সকালে ঘটনাস্থলে ছুটে যান নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিক। তিনি আগুনে পুড়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের খোঁজ-খবর নেন এবং সরকারি অনুদান দেয়ার আশ্বাস দেন। 

অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত তৈয়ব আলী জানান, মেয়ে সহ পরিবারের তিন সদস্য গার্মেন্টে চাকরি করে জীবিকা নির্বাহ করেন। বৃহস্পতিবার আগুন লাগার পর পরিবারের সদস্য নিয়ে নিজেদের জীবন বাঁচাতে ঘর থেকে বের হয়ে যাই। ঘর থেকে একটি সুতাও বের করতে পারিনি। জামা কাপড় থেকে করে ফ্রিজ, টিভি সহ সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। 

এদিকে বৃহস্পতিবার রাতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৩৬ ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের খোঁজ-খবর নিতে শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থলে ছুটে যান নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিক।

তিনি আগুনে পুড়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের খোঁজখবর নেন এবং তাদের খাবারের ব্যবস্থা করার জন্য স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম সাইফউল্লাহ বাদলকে অনুরোধ করেন। পরে চেয়ারম্যান তাৎক্ষনিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের খাবারের ব্যবস্থা করেন। 

আর ইউএনও নাহিদা বারিক আগুনে পুড়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সরকারী অনুদান দেয়ার আশ্বাস দিয়ে তালিকা তৈরি করার নির্দেশ দেন তিনি। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে খাবারের ব্যবস্থা করা হলো কিনা দুপুরে ফের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ইউএনও নাহিদা বারিক।

উল্লেখ্য, ২৬ নভেম্বর রাতে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার উত্তর নরসিংপুর-মুসলিমনগর সীমাবর্তী এলাকায় গিয়াস উদ্দিনের ভাড়াটিয়া বাড়িতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। অগ্নিকান্ডে ৩৬টি টিনের তৈরি বসত ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার সংবাদে নারায়ণগঞ্জ ও বিসিক ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর