শিরোনাম
প্রকাশ : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৩:১৯
আপডেট : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৪:০৯
প্রিন্ট করুন printer

দুর্যোগ মোকাবিলায় শেখ হাসিনা বিশ্বের শিক্ষকের ভূমিকা পালন করছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুর্যোগ মোকাবিলায় শেখ হাসিনা বিশ্বের শিক্ষকের ভূমিকা পালন করছেন

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম বলেছেন, দুর্যোগ মোকাবিলায় বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের শিক্ষকের ভূমিকা পালন করছেন। জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন গত বছর বাংলাদেশ সফরেও এ স্বীকৃতি দিয়েছেন। করোনাকালে বিশ্ব যখন হিমশিম তখন বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা এবং জীবন-জীবিকা সচল রাখতে নেতৃত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। যার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে একটি মানুষও না খেয়ে মারা যায়নি। সে কারণেই তিনি দুর্যোগ মোকাবিলায় বিশ্বের শিক্ষকের ভূমিকা পালন করছেন। 

আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির উদ্যোগে নসরুল হামিদ মিলনায়তনে চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, বিএনপি সরকার ব্যর্থ, তারা রাজপথেও ব্যর্থ। করোনার টিকা নিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত শুরু করেছেন।

তিনি আরও বলেন, 'প্রধানমন্ত্রীর সঠিক পদক্ষেপের কারণেই দ্রুত দেশে টিকা এসেছে। ইতোমধ্যে ৫৪টি জেলায় টিকা পৌছে গেছে। আগামী ৭ তারিখ থেকে টিকা দান শুরু হবে। এনামুল হক শামীম ‘বঙ্গবন্ধুকন্যাকে সাংবাদিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী’ উল্লেখ করে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিজেও সাংবাদিকতা করতেন। সে কারণে শেখ হাসিনা নিজেও সাংবাদিকবান্ধব প্রধানমন্ত্রী।

সাংগঠনিক কল্যাণে প্রধানমন্ত্রী সব সময় এগিয়ে এসেছেন। সাংবাদিকদের কল্যাণ ফান্ড, আবাসনের ব্যবস্থা, দুর্যোগকালীন সময়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন। অসুস্থ সাংবাদিকদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন। কে কোন দল করেন সেটা বিবেচনায় নেননি, তিনি অসহায় সাংবাদিকদের পাশে দাড়ান। এই করোনাকালেও সাংবাদিকদের বিশেষ ভাতা দিয়েছেন। সাংবাদিকদের কল্যাণ ফান্ডে টাকা দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণেই দেশে বেসরকারিখাতে টেলিভিশন, পত্রিকা এবং রেডিও দিয়েছেন। এতে হাজার হাজার মানুষের কর্মসংস্থান ছাড়াও সাংবাদিকদের ওয়েজ বোর্ডও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে দেওয়া হয়েছে।

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী শামীম বলেন, 'দেশের গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠিত করতে হলে শক্তিশালী গণমাধ্যম দরকার। সরকার কোন ভুলত্রুটি করলে সেগুলো তুলে ধরে সরকারের সাফল্যগুলোও জনগণকে জানান। সমালোচনার পাশাপাশি ভাল কাজগুলো তুলে ধরলে সবার উপকার হয়।'

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজকে বিশ্বের রোল মডেল উল্লেখ করে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শামীম বলেন, 'টানা হ্যাট্রিক প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে চতুর্থবারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সততায়, নেতৃত্বে, যোগ্যতায়, মানবিকতার সকল ক্ষেত্রে তিনি সেরাদের সেরা। 

তিনি আরও বলেন, রাজনীতিবিদ ও সাংবাদিক একে অপরের পরিপূরক। বিরোধী দলের রাজনীতির সময়ে অনেক সাংবাদিক বন্ধুর সহায়তা পেয়েছি। এখনও পাই। সাংবাদিকদের সঙ্গে আমার সর্ম্পক স্থায়ী। কারণ একজন রাজনীতিবিদের উত্থান-পতনে সাংবাদিকদের ভূমিকা থাকে।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সহ-সভাপতি ওসমান গনি বাবুলের সভাপতিত্বে এছাড়াও বক্তৃতা করেন সন্ধানী জাতীয় চক্ষুদান সমিতির উপদেষ্টা ডা. মনিলাল আইন লিটু, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান খান, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুল হাসান সোহেল, কল্যাণ সম্পাদক খালেদ সাইফুল্লাহ প্রমুখ।

 

বিডি প্রতিদিন/ অন্তরা কবির 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর