২৮ জুলাই, ২০২১ ১৫:০৩

রংপুরে লকডাউনে দিনে ব্যস্ততা, রাতে সুনসান নীরবতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

রংপুরে লকডাউনে দিনে ব্যস্ততা, রাতে সুনসান নীরবতা

দিনের বেলায় মানুষের ব্যস্ততা বাড়লেও সন্ধ্যার পর সুনসান নীরবতা

রংপুর নগরীতে কঠোর লকডাউনে দিনের বেলায় মানুষের ব্যস্ততা বাড়লেও সন্ধ্যার পর সুনসান নীরবতা বিরাজ করে। আগের চেয়ে মানুষজনের চলাচল বেড়েছে। দোকানপাটেও এক সাটার খুলে ব্যবসা চলছে। সড়কে যানবাহন বাড়ছে।

লকডাউনের ষষ্ঠদিনে পুলিশ র‌্যাবের তৎপরাতা অন্যান্য দিনের চেয়ে বেশি লক্ষ্য করা গেছে। নানা অজুহাতে মানুষ বাড়ি থেকে বের হচ্ছেন। প্রতিদিন জরিমানা করেও মানুষকে দিনের বেলা ঘরবন্দি রাখা যাচ্ছে না।

এদিকে, দিনের বেলা সড়কে মানুষজনের ব্যস্ততা দেখা গেলেও সন্ধ্যা নামলে চলাচল কমে যায়। রাত ৯টা বাজতেই অনেকস্থানে সুনসান নীরবতা বিরাজ করতে দেখা গেছে। পাড়া মহল্লার মোড়ে ছোটখাট আড্ডা থাকলেও প্রধানসড়কসহ অন্যান্য সড়কে লোকজনের চলাচল শূন্যের কোঠায় নেমে আসে রাত যত বেশি হয়।

রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকায় সরকার ঘোষিত বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ৬ থানা, ট্রাফিক বিভাগ ও ডিবি'র মোট ২৫টি টহল টিম এবং ২০টি চেকপোস্ট বিধি-বহির্ভূতভাবে বিভিন্ন যানবাহনের চলাচল নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে শহরের গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশদ্বার, সড়ক ও স্থানে নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করছে। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে রংপুর মহানগর এলাকায় যানবাহনের অযাচিত ও অপ্রয়োজনীয় চলাচল নিয়ন্ত্রণে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ৬ থানা ও ট্রাফিক বিভাগ বিধি-বহির্ভূতভাবে চলাচলরত বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে সড়ক পরিবহন আইনে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত মোট ১৩৪টি মামলা দায়ের করেছে। আটক করা হয়েছে ২০টি যানবাহন। মোট জরিমানা করা হয়েছে ৪ লাখ ২৮ হাজার ৫০০ টাকা।

এছাড়াও মেট্রোপলিটন পুলিশের ৬ থানা, ট্রাফিক ও ডিবি কর্তৃকসহ জেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনীর টহল দল, র‌্যাব টহল দল এবং বিজিবি টহল দল যৌথভাবে রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকায় লকডাউনের বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে মোট ২৪টি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে। এতে মোট ১৩ হাজার ৭৫০ টাকা টাকা জরিমানা করা হয়। লকডাউনের বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকায় সেনাবাহিনীর ২টি টহল দল, র‌্যাবে’র ২টি টহল দল, বিজিবির ২টি টহল দল ও আনসার ব্যাটালিয়নের ২টি টহল দল কাজ করছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন

এই বিভাগের আরও খবর