শিরোনাম
২৫ জানুয়ারি, ২০২২ ১৪:৩৪

পুলিশ সপ্তাহে প্রথমবারের মতো পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে মতবিনিময়

অনলাইন ডেস্ক

পুলিশ সপ্তাহে প্রথমবারের মতো পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে মতবিনিময়

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেছেন, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক একটি স্বার্থান্বেষী মহল আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এটা আপনাদের জন্য যেমন কষ্টকর, তেমনি বাংলাদেশের ভাবমূর্তির সাথেও যায় না। এক্ষেত্রে কাজ করার জন্য তিনি পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। 

পুলিশ সপ্তাহ ২০২২ এর দ্বিতীয় দিনে সোমবার রাতের অধিবেশনে বাংলাদেশ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণের সাথে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবের মতবিনিময় সভা রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ সপ্তাহের অধিবেশনে এবারই প্রথমবারের মতো পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে মতবিনিময়ের আয়োজন করা হলো। 

ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এন্টি টেরোরিজম ইউনিটের অতিরিক্ত আইজি মোঃ কামরুল আহসান। 

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বলেন, অবৈধ অভিবাসন রোধে পুলিশের আরও কাজ করার সুযোগ রয়েছে। বিদেশে কর্মরত প্রবাসীদের কল্যাণে পুলিশের প্রবাসী সহায়তা সেল এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যৌথভাবে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। 

তিনি সাইবার অপরাধ মোকাবেলায় আগাম ব্যবস্থা এবং ইন্টেলিজেন্স সংগ্রহের ওপর জোর দেন। 

পররাষ্ট্র সচিব জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ পুলিশের কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের প্রশংসা করেন। তিনি জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯, ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার, ওয়ান স্টপ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ইত্যাদি সেবার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, জাতিসংঘের পিসকিপিংয়ের মাধ্যমে আমাদের যে সুনাম এসেছে তা ধরে রাখতে ধৈর্য্যের সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। 

সভাপতির বক্তব্যে আইজিপি বলেন, বাংলাদেশ দেশী ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করছে। এটাকে সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করতে হবে। 

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, এদেশে জন্মগ্রহণ করে কিভাবে এদেশের মানুষ দেশের বিরুদ্ধে কাজ করে তা আমার বোধগম্য হয় না। 

অবৈধ অভিবাসীর প্রসঙ্গ উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের এখন আর নৌকায় করে অভিবাসী হিসেবে বিদেশে যাওয়ার মত অবস্থা নেই। তিনি এক্ষেত্রে জনসচেতনতা বাড়ানোর আহবান জানান। 

আইজিপি বলেন, আজকের এ সভা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং পুলিশের মধ্যে কাজের ক্ষেত্রে এক নতুন দিগন্ত উন্মোচন করবে। 

সভায় উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তারা প্রবাসী বাংলাদেশীদের আইনি সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে পুলিশ লিয়াজোঁ অফিসার নিয়োগের গুরুত্ব ও যৌক্তিকতা তুলে ধরেন। 

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসজনিত রোগ কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে সরকারি বিধি-নিষেধ যথাযথভাবে প্রতিপালনার্থে ১০০ জনের কম পুলিশ কর্মকর্তার অংশগ্রহণে এ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর