শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৭ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ মার্চ, ২০১৮ ০০:০২

এক মেশিনেই ধান কাটা মাড়াই বস্তাজাত

বসুন্ধরায় জমজমাট কৃষিশিল্প মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

এখন থেকে কৃষিনির্ভর শিল্পপণ্যের উৎপাদন হবে স্বয়ংক্রিয় মেশিনে। এক মেশিনেই ধান কাটা, মাড়াই, বস্তাজাত করা যাবে। এক বস্তার ধান আরেক মেশিন দিয়ে চাল হয়ে বের হবে। মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে। শুধু ধান নয়, গম, ভুট্টা, তেল বীজ উৎপাদনেও এমন আধুনিক প্রযুক্তির মেশিন এসেছে। এসব মেশিনেরই প্রদর্শনী চলছে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি)। লিমরা আয়োজিত প্রদর্শনীর দ্বিতীয় দিনে গতকাল গিয়ে দেখা গেছে, দেশি-বিদেশি তিন শতাধিক প্রতিষ্ঠান তাদের কৃষি যন্ত্রপাতি নিয়ে হাজির হয়েছে মেলায়। উল্লিখিত চীনের তৈরি স্বয়ংক্রিয় ধান কাটার মেশিন প্রদর্শনও করা হচ্ছে। এ মেশিনের মাধ্যমে জমিতে ধান কাটা থেকে শুরু করে বস্তাজাত পর্যন্ত সব করা যাবে। ১ একর জমির ধান বস্তাজাত করতে সময় লাগবে মাত্র তিন ঘণ্টা। আধুনিক এই মেশিনের একেকটির দাম সাত লাখ টাকা করে। তবে কৃষক বা উৎপাদনকারীকে একেকটিতে দিতে হবে মাত্র সাড়ে তিন লাখ টাকা। বাকি সাড়ে তিন লাখ টাকা ভর্তুকি দেবে সরকার। এ ছাড়া আরেকটি মেশিন রয়েছে শস্য রিজার্ভ করার। এই মেশিনে বছরের যে কোনো সময় শস্য তুলে প্রিজার্ভ করা যাবে। এসব পণ্যেও সরকার ভর্তুকি দিচ্ছে। মেলায় রয়েছে অটো রাইস মিল, ফিড মিল, ফ্লাওয়ার মিল, অয়েল, ডাল, কোল্ড স্টোরেজ, সাইলো, বেকারি মেশিনারি, চা, কফি, খাদ্য ও কোমল পানীয় উৎপাদন প্রযুক্তি, ট্রাক্টর, পাওয়ার টিলার, কৃষি যন্ত্রপাতি, হার্ভেস্টার, সৌরবিদ্যুৎ প্রযুক্তি পণ্যের বিশাল সমাহার। ট্রেড এশিয়া নিয়ে এসেছে ক্যাটল/শিপ মিল্কিং মেশিন। মাত্র ৪০ হাজার থেকে শুরু করে এক লাখ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে এই মেশিন। দেশের প্রসারমান দুগ্ধ খামারিদের জন্য ফ্লোর ক্লিনিং মেশিন প্রদর্শন করছে। এই মেশিনের ওপর পা রাখলেই পলিথিনে মুড়িয়ে যাবে জুতার পুরো অংশ।

 তারা দুগ্ধ খামারের জন্য বিশ্বমানের প্রযুক্তি সেবা দিচ্ছেন। আলিফ বয়লার কোম্পানি বিশ্বসেরা বয়লারও প্রদর্শন করছে।

এ ছাড়া প্লাটিনাম স্টুডিও অংশ নিয়েছে প্রদর্শনীতে। গ্রাহকের পণ্যের প্রচারের ক্ষেত্রে এ প্রতিষ্ঠানটি কাজ করছে। পণ্যকে আরও সুন্দর ও দৃষ্টিনন্দনভাবে উপস্থাপনের জন্যও তারা কাজ করছে। এখানে আবেদিন নামে জার্মানির কাটার মেশিন প্রদর্শন করা হচ্ছে। এই মেশিনের সাহায্যে পাট কাটা থেকে শুরু গাছের গুঁড়ি পর্যন্ত কাটা যাবে। ১০ হাজার থেকে শুরু করে এসব মেশিনের দাম দুই লাখ টাকা পর্যন্ত।

মেলায় দেখা গেছে, সারা দেশ থেকেই এসেছেন উদ্যোক্তারা। তারা ঘুরে ঘুরে দেখছেন স্টল। সংশ্লিষ্টরা জানান, এসব প্রযুক্তি পণ্য কিনে নিজের গ্রামেই দেওয়া যাবে শিল্প-কারখানা। মেলার উদ্যোক্তারাই দেশের কৃষিজাত পণ্যের আধুনিক শিল্প গড়ে দেবে। বিভিন্ন স্টেকহোল্ডার, যন্ত্রপাতি আমদানিকারকরাই সরাসরি গিয়ে স্থাপন করে দেবে শিল্প। গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী পণ্যের মূল্য নির্ধারণ এমনকি ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থাও করে দেবেন তারা।

লিমরা ট্রেড ফেয়ারস অ্যান্ড এক্সিবিশন লিমিটেডের চেয়ারম্যান কাজী সারোয়ার উদ্দিন জানান, ৩০৫টি শিল্প-প্রতিষ্ঠান প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছে। এখানে ৬৫২টি স্টল রয়েছে। বাংলাদেশ, ভারত, জার্মানি, ইতালি, তাইওয়ান, চীনসহ ১৮টি দেশের শীর্ষস্থানীয় কোম্পানিগুলো অংশ নিয়েছে প্রদর্শনীতে। তিন দিনব্যাপী মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে।


আপনার মন্তব্য