Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ মার্চ, ২০১৯ ২৩:১৪

৭০ শতাংশ বেশি দামে কিনতে হয় ভোগ্যপণ্য

প্রতিযোগিতা কমিশনের সেমিনার

নিজস্ব প্রতিবেদক

৭০ শতাংশ বেশি দামে কিনতে হয় ভোগ্যপণ্য

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য, শ্রম ও উন্নয়ন অর্থনীতিবিদ এবং কমনওয়েলথ সচিবালয়ের সাবেক প্রধান ড. আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজার দরের তুলনায় বাংলাদেশে নিম্ন ও মধ্যবর্তী ভোক্তাদের ভোগ্যপণ্য কিনতে ৭০ শতাংশ বেশি মূল্য গুনতে হয়। এ ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা কমিশন যদি সঠিকভাবে কাজ করে বিশ্ববাজারের সঙ্গে দেশের পণ্যমূল্যের ব্যবধান কমাতে পারত তাহলে দরিদ্র্য ও অতিদরিদ্রের সংখ্যা যে হারে কমছে সেটা আরও ত্বরান্বিত হতো। জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বাজারে প্রতিযোগিতা নিশ্চিত করে পণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করা হবে। পণ্যের উপযুক্ত মূল্য নিশ্চিত করতে প্রতিযোগিতা কমিশনের আইনের কঠোর প্রয়োগ এবং জনসচেতনতা বাড়াতে হবে। রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে গতকাল ‘টেকসই অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশনের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা উঠে আসে। বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন এ সেমিনারের আয়োজন করে।  সেমিনারে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, দেশে পণ্যের         মূল্য বেশি হওয়ায় সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ আরও বেশি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ইজ অব ডুয়িং বিজনেস সূচকে বাংলাদেশ তলানিতে থাকার কারণে আশানুরূপ বিদেশি বিনিয়োগ আসছে না। কারণ পণ্য বিক্রি করে যে পরিমাণ লাভ করা সম্ভব ব্যবসা শুরু করতেই প্রায় সে পরিমাণ ব্যয় করতে হয়। এফবিসিসিআই সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিন) বলেন, ‘সরকার বিভিন্ন টেন্ডার আহ্বান করলে এমন সব শর্ত জুড়ে দেয় যে, টেন্ডারে নতুনরা অংশগ্রহণই করতে পারে না। এমনকি কেউ ৫০০ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে শোধ না করলে তারা একটা ক্লাবে ঢুকে যায়। ফলে স্বযংক্রিয়ভাবে তাদের ঋণ রিসিডিউল হয়ে যায়। অথচ একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ২০ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে ব্যবসায় লস করলে দেউলিয়া হয়ে যেতে হয়। তাদের এক্সিটের কোনো উপায় থাকে না। কমিশনের চেয়ারপারসন মো. ইকবাল খান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন বাণিজ্য সচিব  মফিজুল ইসলাম।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর