শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ এপ্রিল, ২০১৯ ২৩:১৯

হালদা নদীতে ডিমের অপেক্ষায় সংগ্রহকারীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে মা মাছের ডিম ছাড়ার মৌসুম শুরু হয়েছে। মা মাছগুলো হালদা নদীতে আনাগোনা শুরু করেছে। প্রায় এক হাজার ডিম সংগ্রহকারী এখন অপেক্ষার প্রহর গুনছেন। সবাই ডিম সংগ্রহের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম নিয়ে অধীর অপেক্ষায় আছেন। জানা যায়, চট্টগ্রামের হালদা নদীতে সাধারণত এপ্রিল থেকে জুন (চৈত্র-বৈশাখ) মাসে রুই, কাতলা, কালিবাউস, মৃগেল ও কার্প জাতীয় মা মাছ ডিম ছাড়ে। কার্যত পূর্ণিমা-আমাবস্যায় আকাশের প্রবল গর্জন, পাহাড়ি ঢল, ভারি বর্ষণের এই সময়ই হালদা নদীর মা মাছ ডিম ছাড়ে। গত মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রামে ভারি বৃষ্টি ও মেঘের গর্জন হয়েছিল। ফলে এই সময়টাকে মা মাছ ডিম ছাড়ার উৎকৃষ্ট সময় বলে মনে করছেন ডিম সংগ্রহকারীরা। হাটহাজারীর গড়দোয়ারা ইউনিয়নের ডিম সংগ্রহকারী কামাল উদ্দিন সওদাগর বলেন, মা মাছের ডিম ছাড়ার মৌসুম শুরু হয়েছে। প্রায় এক হাজার ডিম সংগ্রহকারী ৬ শতাধিক নৌকা নিয়ে ডিম ধরার অপেক্ষায় আছি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হালদা রিভার রিচার্স ল্যাবরেটরির সমন্বয়ক অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরীয়া বলেন, হালদা নদীতে ডিম ছাড়ার সব উপসর্গ শুরু হয়ে গেছে। মেঘের গর্জন, আকাশ মেঘাচ্ছন্ন, ভারি বর্ষণসহ সব শুরু হয়েছে। ফলে এখন ডিম ছাড়ার মোক্ষম সময়। এবার হালদায় ডিম ছাড়ার ক্ষেত্রে একটি বৈপ্লবিক পরিবর্তন হতে পারে। হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ রুহুল আমীনের উদ্যোগে হালদা নদীতে অভিযান চালিয়ে কারেন্ট জাল জব্দ, জরিমানা, বালি উত্তোলন বন্ধ, ড্রেজার জব্দ ও ডিম ফুটানোর জন্য ৩০টি কূপ তৈরিসহ নানা কারণে এবার হালদার ডিম প্রাপ্তিতে একটি পরিবর্তন আসতে পারে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর