শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ জুলাই, ২০১৯ ০১:৪৫

দুর্নীতি প্রতিরোধে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন

-ইকবাল মাহমুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, শুধু টিআইবি নয় দুদক সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা চায়। দুর্নীতি প্রতিরোধে সবার ঐকান্তিক সহযোগিতা প্রয়োজন। গতকাল দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সংস্থাটির সঙ্গে টিআইবির নতুন করে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের সময় দুদক চেয়ারম্যান এ কথা বলেন। সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের সময় টিআইবির পক্ষ থেকে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন। ইকবাল মাহমুদ বলেন, আইনি কারণেই কমিশনকে ছোট-বড় সব প্রকার মামলাই করতে হয়। কারণ ক্ষুদ্র দুর্নীতির বিষয়ে যিনি অভিযোগ করেন, তারও আইনি প্রতিকার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। যদি চুনোপুঁটিদের মামলাগুলো আইনি প্রক্রিয়ায় অন্যভাবে নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয়, তাহলে মামলা জট কমতে পারে। তিনি বলেন, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিভিন্ন সৃজনশীল কর্মসূচি প্রণয়ন করে তা বাস্তবায়ন করা গেলে তাই হবে দেশের সর্বোচ্চ বিনিয়োগ। তাদের মাইন্ডসেট পরিবর্তনের জন্য যদি কর্মসূচি নেওয়া যায়, তাহলে দুদক সর্বোচ্চ সহযোগিতা করবে।

 তাই সমঝোতা স্মারকে সৃজনশীল এবং উদ্ভাবনীমূলক কর্মসূচি রাখা সমীচীন হবে। এক প্রশ্নের জবাবে দুদক  চেয়ারম্যান বলেন, কমিশনের সক্ষমতার কিছুটা ঘাটতির কারণেই মামলায় অপরাধীদের শতভাগ শাস্তি নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। তারপরও কমিশনের প্রায় ৭০ শতাংশ মামলায় সাজা হচ্ছে। এটি অবশ্যই ইতিবাচক পরিবর্তন। কমিশনের কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য বহুসংখ্যক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে এবং এখনো প্রশিক্ষণ চলছে।

টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, দুদকের সঙ্গে আমাদের নাড়ির সম্পর্ক রয়েছে। আমরা এই প্রতিষ্ঠানটির সৃষ্টি থেকেই পাশে রয়েছি। আমরা দুদককে আরও শক্তিশালী করতে একসঙ্গে কাজ করতে চাই। এটি অত্যুক্তি হবে না যে, টিআইবি বর্তমান কমিশনের কাছ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা পাচ্ছে।


আপনার মন্তব্য