শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০৬

রংপুর মেডিকেল কলেজ

ডায়ালাইসিস ইউনিট বন্ধ পানির অভাবে

রংপুর প্রতিনিধি

ডায়ালাইসিস ইউনিট বন্ধ পানির অভাবে

রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে পানির অভাবে বন্ধ হয়ে গেছে ডায়ালাইসিস ইউনিট। বিকল ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট সচল না হওয়া পর্যন্ত ইউনিটটি চালুর সম্ভাবনা নেই বলেও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বছরখানেক ধরে রমেকের ২৫টি ডায়ালাইসিস মেশিনের ১১টি বিকল হয়ে পড়ে আছে। বাকি ১৪টি মেশিন দিয়ে কোনোরকমে চলছিল কার্যক্রম। বুধবার ওয়াটার প্লান্ট বিকল হলে বন্ধ হয়ে যায় ডায়ালাইসিস ইউনিটের পুরো কার্যক্রম। জানা গেছে, ওয়াটার প্লান্টের মূল সরবরাহ লাইনের দুটি মেশিন নষ্ট হওয়ায় বুধবার ডায়ালাইসিস বন্ধ করে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। চরম বিপাকে পড়েন রংপুরের আট জেলার কিডনিজনিত জটিল রোগে আক্রান্ত শত শত ব্যক্তি। নগরের স্টেশন এলাকা থেকে হাসপাতালে ডায়ালাইসিস করাতে আসা ব্যবসায়ী আমিনুর রহমান বলেন, সপ্তাহের প্রতি বৃহস্পতিবার তার স্ত্রীকে ডায়ালাইসিস করাতে হয়। কিন্তু ডায়ালাইসিস করাতে না পেরে তিনি হতাশ। প্রায় দিনই এ ইউনিটে এ রকম সমস্যা হয় বলেও তিনি জানান। সরেজমিন গিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে কথা হয় রমেক হাসপাতালে ডায়ালাইসিস করাতে না পেরে ক্ষোভ প্রকাশ করা অন্যদের সঙ্গেও। দরিদ্র মানুষগুলোর সামনে আর কোনো বিকল্প উপায় না থাকায় তারা চাইছেন দ্রুত চালু হোক বন্ধ থাকা ইউনিটটি। শুধু তাই নয়, কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোনো প্রতিকার না পাওয়ার অভিযোগ হাসপাতালের স্টাফদের। ডায়ালাইসিস ইউনিটের সিনিয়র স্টাফনার্স আছমা বেগম বলেন, ‘মেশিন নষ্ট থাকায় রোগীদের ডায়ালাইসিস করতে পারছি না।

 পরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের বন্ধ ইউনিট চালুর বিষয়ে অনেকবার অবগত করা হয়েছে।’ এখন কাজ না থাকায় তারা বেকার সময় পার করছেন বলেও জানান তিনি।

কবে নাগাদ বন্ধ ডায়ালাইসিস ইউনিট চালু করা যাবে তাও বলতে পারছেন না হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘২৫টি ডায়ালাইসিস মেশিনের ১১টি আগে থেকেই বিকল ছিল। বাকি ১৪টি দিয়ে কার্যক্রম চলছিল। এখন ওয়াটার প্লান্ট বিকল হয়ে যাওয়ায় পুরো কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘মেশিনের মেয়াদ আছে কিন্তু মেশিনের ওয়ারেন্টি শেষ হয়ে যাওয়ায় কোম্পানি থেকে সার্ভিসিং করে দিচ্ছে না। এ কারণে ডায়ালাইসিস ইউনিট চালুর বিষয়ে দিনক্ষণ নিশ্চিত করা যাচ্ছে না।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর