শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:২৬

জনতার সেন্টিমেন্ট বুঝতে ব্যর্থ হলে খেসারত দিতে হবে

-পীর চরমোনাই

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর চরমোনাই বলেছেন, বৃহত্তর জনতার সেন্টিমেন্টকে বুঝতে ব্যর্থ হলে তার খেসারত হয়তো সরকারকে দিতে হতে পারে। মানবমূর্তি বা ভাস্কর্য নিয়ে দেশের শীর্ষ ধর্মীয় নেতাদের বিরুদ্ধে না গিয়ে সরকারকে ৯২ ভাগ মুসলমানের সেন্টিমেন্টকে বোঝার চেষ্টা করা উচিত। গতকাল চরমোনাই মাদ্রাসায় বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

ইসলামী আন্দোলনের আমির আরও বলেন, দেশের কোনো ইসলামী নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অশ্রদ্ধা ও অসম্মান করেননি। বঙ্গবন্ধু শুধু কোনো দল বা গোষ্ঠীর নেতা নন। স্বাধীনতার স্থপতি হিসেবে তাঁকে সবাই সম্মান করে। সঠিক পদ্ধতিতে বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফেরাত কামনার অধিকার সবারই আছে। ভাস্কর্যের নামে বঙ্গবন্ধুর মানবমূর্তির পরিবর্তে আল্লাহর নিরানব্বই নাম খচিত মিনার নির্মাণের দাবি করা যে বঙ্গবন্ধুর অসম্মান নয় বরং তাঁকে আরও শ্রদ্ধার আসনে বসানো। এ কথা যারা উপলব্ধি করতে পারে না তারাই দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে।

তিনি বলেন, মানবমূর্তি বা ভাস্কর্য পৌত্তলিকতার প্রতীক। যা ইসলামী সংস্কৃতির বিপরীত। ভাস্কর্যকে কেন্দ্র করে সরকারদলীয় নেতা-কর্মীরা যেভাবে দেশের শীর্ষ ধর্মীয় নেতাদের তুলাধুনা করছেন এতে সরকারের মঙ্গল হবে না। দেশের ওলামায়ে কেরাম মানবমূর্তি বা ভাস্কর্য বিষয়ে বিশদ আলোচনার মাধ্যমে তা বুঝানোর চেষ্টা করছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর