শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৫ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ মার্চ, ২০২১ ২৩:৫১

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ধানের চারায়

আবদুর রহমান টুলু, বগুড়া

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ধানের চারায়

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বালেন্দা গ্রামে ধানের চারায় ছড়িয়ে আছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি। এক মাসের টানা পরিশ্রমে ১২০ বিঘা জমিতে শোভা পাচ্ছে এই প্রতিকৃতি। দুই রঙের ধান চারা রোপণের পর থেকে যতেœ বড় হয়ে ওঠা ধান চারাগুলোয় ঠিকঠাক ফুটে উঠেছে জাতির পিতার প্রতিকৃতি। বলা হচ্ছে, এটিই হবে বিশে^র সবচেয়ে বড় শস্যক্ষেত্রে বড় চিত্রকর্ম যা বিশ্ব রেকর্ডের অপেক্ষায় আছে।

শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি বাস্তবায়ন কমিটি সূত্রে জানা যায়, গিনেসবুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে এর আগে চীনে ২০১৯ সালে শস্যচিত্র তৈরি করা হয়েছিল, যার আয়তন ছিল ৮ লাখ ৫৫ হাজার ৭৮৬ বর্গফুট। এবার বগুড়ার গ্রাম বালেন্দায় বঙ্গবন্ধুর শস্যচিত্রটির আয়তন হবে ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট বা ১ লাখ ২০ হাজার বর্গ মিটার।

জানা যায়, বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বালেন্দা গ্রামের ১২০ বিঘা কৃষি জমিতে গত ২৯ জানুয়ারি ধানের চারা রোপণের মধ্য দিয়ে শস্যচিত্রে প্রতিকৃতি সৃষ্টির কাজ শুরু হয়। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উচ্চ ফলনশীল দুই ধরনের ধানের চারা রোপণের মাধ্যমে এই কর্মযজ্ঞের উদ্বোধন করেন। শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন। সোনালি রঙের ও বেগুনি রঙের বিশেষ দুটি জাতের ধানের চারা রোপণ করা হয়। এই দুই রঙের সমন্বয়ে ধান চারা যতটা বড় হয়েছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ততটাই ফুটে উঠেছে। গত এক মাসে অধিক যতেœর কারণে এবং সঠিক পরিচর্যায় ধান চারাগুলো বেশ বেড়ে উঠেছে।

মুজিব জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের উদ্যোগে এবং ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ারের সহযোগিতায় এই ব্যতিক্রমী কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। যা গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে অন্তর্ভুক্ত হয়ে বাংলাদেশের জন্য নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করবে।

শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম জানান, শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিচ্ছবি তৈরি করার জন্য দুই ধরনের ধানচারা বেছে নেওয়া হয়েছে বেগুনি ও সোনালি রং। বগুড়ার বালেন্দা গ্রামের ৪০ একর জমির মাঠ প্রস্তুত করতে ১০০ বিএনসিসি সদস্যের দল অংশ নেয়। আসছে ১৭ মার্চ শস্যচিত্রটি বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করে উদ্বোধন করা হবে। বিশে^র সর্ববৃহৎ শস্যচিত্র হবে এটি। এই শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর আয়তন হবে ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট। শস্যচিত্রের দৈর্ঘ্য ৪০০ মিটার এবং প্রস্থ হবে ৩০০ মিটার।

ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ারের এই প্রকল্পের ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম বলেন, শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি ফুটিয়ে তুলতে বিগত কয়েক মাস আগ থেকেই কাজ শুরু হয়েছে। কৃষকদের কাছ থেকে লিজ নেওয়া হয়েছে জমি। ইতিমধ্যে ধান চারা বেড়ে ওঠায় শস্যচিত্রে ফুটে উঠেছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি (ছবি)। জমির খুব কাছ থেকে দেখা না গেলেও কিছুটা উঁচু থেকে এই চল্লিশ একর জমিতে রোপণ করা ধানের দৃশ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি দেখা যাবে।

বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ম. আবদুর রাজ্জাক জানান, শস্যচিত্রটি চলতি মার্চ মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে পরিপূর্ণ হবে। গিনেসবুকে রেকর্ডের জন্য শস্যচিত্রের সব তথ্য কর্তৃপক্ষকে পাঠানো হয়েছে। এখন অপেক্ষা চলছে বিশ্ব রেকর্ড গড়ার। আশপাশের গ্রামের মানুষ দল বেঁধে দেখে যাচ্ছেন। অনেকেই এসে খেতগুলোর খবরাখবর নিয়ে যাচ্ছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর