শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৫ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জুন, ২০২১ ০২:০১

অন্তরঙ্গ সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করে নারীদের ফাঁদে ফেলত আতিক

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মী, লেখকসহ নিজের নামের পাশে অসংখ্য বিশেষণ ও পদ ব্যবহার করে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছিলেন আতিকুর রহমান আতিক। অবশেষে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন এ ব্যক্তি। নারীদের   সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে সেগুলোর গোপন ভিডিও ধারণ করতেন। সেই ভিডিও কাজে লাগিয়ে তিনি নারীদের বিভিন্ন অপকর্মে বাধ্য করতেন। গতকাল র‌্যাব-৪ এর পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, রাজধানীর রূপনগরে ইস্টার্ন হাউজিং এলাকায় অভিযান চালিয়ে আতিকুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। তার গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালী জেলায়। তার কাছ থেকে একটি ট্যাব, একটি মোবাইল ফোন, একটি ওয়াইফাই রাউটার, দুটি আইডি কার্ড, ৫০টি ভিজিটিং কার্ড ও পাঁচটি হার্ড ফাইল জব্দ করা হয়েছে। র‌্যাব জানায়, আতিক ১৯৮২ সালে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি দীর্ঘদিন সিদ্ধিরগঞ্জ স্থানীয় স্কুলে সহকারী শিক্ষক হিসেবে শিক্ষকতা করেন।

পরে ২০১৭ সালে ডিজিটাল আন্তর্জাতিক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন নামে একটি মানবাধিকার সংস্থা খুলে নিজেই প্রতিষ্ঠাতা এবং চেয়ারম্যান হন। কথিত মানবাধিকার সংস্থার চেয়ারম্যান থাকাকালীন বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে তার পরিচয় হয়। মূলত সেখান থেকেই তার প্রতারণা কার্যক্রম শুরু। বিভিন্ন ক্ষমতাবান ব্যক্তির পরিচয় দিয়ে, তাদের নাম ব্যবহার করে চাকরি দেওয়া, জমি উদ্ধার, ফ্ল্যাট উদ্ধার এসব কাজের কথা বলে বিপুল পরিমাণ টাকা আত্মসাৎ করে আসছিলেন তিনি। নিরীহ ও সাধারণ মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে তাদের ব্যবহার করে জোরপূর্বক জমি ও টাকা আত্মসাৎ করতেন আতিক। চলাফেরা করতেন আলিশান গাড়িতে। বিভিন্ন এলাকায় ভুয়া পরিচয় দিয়ে আটজনকে বিয়ে করেছেন। কিছু দিন সম্পর্ক রাখার পর টাকা-পয়সা হাতিয়ে নিরুদ্দেশ হয়ে যেতেন। পটুয়াখালীর গলাচিপা থানায় তার নামে একটি ধর্ষণ মামলা রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর