শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ মার্চ, ২০২০ ১৮:০৮
আপডেট : ২৮ মার্চ, ২০২০ ১৮:১২

পুলিশের হস্তক্ষেপে আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল নির্মাণের বাধা কাটল

অনলাইন ডেস্ক

পুলিশের হস্তক্ষেপে আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল নির্মাণের বাধা কাটল
সংগৃহীত ছবি

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য আকিজ গ্রুপের একটি হাসপাতাল তৈরিতে বাধা সৃষ্টির অভিযোগ উঠেছিল। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে সে বাধা কেটে নির্মাণ কাজ পুনরায় শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, শনিবার বেলা একটার দিকে শ’দুয়েক লোক এসে কিছুক্ষণ অবস্থান নিয়ে হাসপাতালটি নির্মাণের প্রতিবাদ জানায়। তারা হাসপাতাল নির্মাণের কাজ কিছু সময়ের বন্ধ করে দেয়। পরে সেখানে আসেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও তেজগাঁও থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিউল্লাহ শফি।  

এসময় কাউন্সিলর সাংবাদিকদের বলেন, এখানে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল হবে শুনে হাজারখানেক লোক এসেছিল। আমি এসে তাদের শান্ত করি। ঘটনাস্থলে উপস্থিত তেজগাঁও থানার উপপরিদর্শক রুহুল আমিন গণমাধ্যমকে বলেন, কাউন্সিলর আসার পর বেশ কিছুক্ষণ এখানে স্থানীয় লোকজন ছিলেন। পরে তারা চলে যান। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী হোসেন খান গণমাধ্যমকে বলেন, এটি একটি ভালো কাজ। আমরা এ ধরনের উদ্যোগের পক্ষে। সব ধরনের সহযোগিতার জন্য আমরা প্রস্তুত রয়েছি। তবে আকিজ গ্রুপের পক্ষ থেকে প্রথমে আমাদের কিছু জানানো হয়নি।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সমালোচনা করে স্থানীয় বাসিন্দারা গণমাধ্যমকে জানান, সমাজে কিছু লোক থাকে তারা যে কোনো ভালো কাজে বাধা তৈরি করে। স্থানীয় জনগণকে উসকে দিয়ে ব্যক্তিগত ফায়দা লুটতে চায়। লোক পাঠিয়ে আবার নিজেই এসেছেন সরিয়ে নিতে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে তার কোনো ভূমিকা নেই। স্থানীয় জনগণকে কোনো ধরনের সহযোগিতা এই ওয়ার্ড কাউন্সিলর করছে না। 

হাসপাতাল নির্মাণকাজ বন্ধের বিষয়ে আকিজ গ্রুপের পরিচালক শেখ শামীম উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, কোনো সমস্যা নেই। সরকারের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা ও সম্মতির ভিত্তিতেই আকিজ গ্রুপ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের পরীক্ষা ও তাদের চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে অস্থায়ী হাসপাতাল গড়ে তুলছে।

তিনি বলেন, জরুরি ভিত্তিতে তেজগাঁওয়ে টিবিএস মোটরসাইকেল বিক্রির যে শোরুমটি ছিল সেটিকে অস্থায়ী হাসপাতাল হিসেবে প্রস্তুত করা হয়েছে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের সহযোগিতায় এখানে কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে কি না তা শনাক্ত করা এবং আক্রান্তদের চিকিৎসা দেওয়া হবে।

শেখ শামীম আরও বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় এই হাসপাতালটি হবে ৩০১ শয্যার। রাজধানীর তেজগাঁওয়ে আকিজের নিজস্ব দুই বিঘা জমিতে হাসপাতালটি তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। আশা করছি দুই সপ্তাহের মধ্যে হাসপাতালটি রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেয়া শুরু করতে পারবে। এটি তৈরি হচ্ছে তেঁজগাও-গুলশান লিংক রোডের শান্তা টাওয়ারের পেছনে। আকিজ গ্রুপ সেখানে বিনামূল্যে রোগীদের চিকিৎসা দেবে। আমাকে সমর্থন দিচ্ছেন আকিজের চেয়ারম্যান সেখ নাসির উদ্দিন ও অন্যান্য পরিচালকেরা। এছাড়া সহায়তা করছেন দু’জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক।

তিনি বলেন, ‘আকিজ গ্রুপের পরিচালকেরা ব্যবসার বিভিন্ন বিভাগ থেকে নানাভাবে মানুষকে সহায়তা করছেন। তারা মাস্ক তৈরি করে দিয়েছেন। খাদ্য বিতরণ করছেন। জীবাণুনাশক বিতরণ করছেন।’ এ ব্যাপারে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আকিজ গ্রুপের এই উদ্যোগ সম্পর্কে গণমাধ্যমকে বলেন, জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে আকিজ গ্রুপ জনগণের সেবায় এগিয়ে এসেছে। তাদের এই উদ্যোগ প্রশংসনীয়। তাদেরকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।

বিডি-প্রতিদন/শফিক


আপনার মন্তব্য