শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ মে, ২০২০ ২০:১৪

বাবার শেষকৃত্যে ছেলের না, হিন্দু বৃদ্ধের সৎকার করলেন মুসলিমরা

অনলাইন ডেস্ক

বাবার শেষকৃত্যে ছেলের না, হিন্দু বৃদ্ধের সৎকার করলেন মুসলিমরা

বিপদে না পড়লে বোঝা যায় না, কে আপন আর কে পর। কিন্তু এতদিন ধরে যাকে সবচেয়ে কাছের মানুষ হিসেবে মনে করতেন, সেই প্রিয় মানুষটি তার মৃত্যুর পর দেখা করতে অস্বীকার করে দেন। ভারতের মহারাষ্ট্রের আকোলা জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় ৭৮ বছরের এক বৃদ্ধের। করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বৃদ্ধের স্ত্রীও। 

মৃত বাবাকে আনতে তো দূরের কথা, শেষকৃত্য সম্পন্ন করতেও অস্বীকার করেছেনন ওই বৃদ্ধের ছেলে। তিনি বর্তমানে নাগপুরে থাকেন। এমন অবস্থায় ওই বৃদ্ধের শেষকৃত্যের সমস্ত দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছে একটি মুসলিম সংগঠন। এমন পরিস্থিতিতে ধর্মনিরপেক্ষতার এক বড় উদাহরণ আকোলা জেলার এই সংগঠন। সংগঠনের প্রেসিডেন্ট জায়েদ জাকারিয়া জানিয়েছেন, জেলায় এমন মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার পরই তারা ঠিক করেন, মৃতদেহ সংকারের কাজে তারা ঝাঁপিয়ে পড়বেন, প্রাণ বাজি রেখেই। মৃতের ধর্ম না দেখেই এই মহত্‍কাজে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আকোলা কাচ্চি মেমন জামাত নামে সংগঠনের সদস্যরা।

সংগঠনের প্রেসিডেন্ট একটি সাক্ষাত্‍কারে জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত ৬০টি দেহের শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছেন তাঁরা। মৃতদের মধ্যে ২১জন ছিল করোনায় আক্রান্ত। পাঁচজন ছিলেন হিন্দু। শুধু সংক্রমণের জন্যই নয়, অনেক পরিবার মৃতদেহ শেষকৃত্য করার ক্ষমতা নেই, তাঁদের জন্যও এই সংগঠন পাশে থেকেছে। আকোলা সরকারি হাসপাতালের স্যানিটেশন বিভাগের প্রধান প্রশান্ত রাজুরকর জানিয়েছেন, সংক্রমণের ভয়েই মৃতের ছেলে শেষকৃত্য করতে অস্বীকার করেন। শেষে স্থানীয় মুসলিম সংগঠনের সদস্যরা সিদ্ধান্ত নেন, নিয়ম মেনে হিন্দু বৃদ্ধের সত্‍কার তারাই করবেন। সূত্র : এই সময়।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর