Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ মে, ২০১৯ ২৩:৪৫

‘খরপোষ দিতে না পারার কষ্টে হত্যা করেন বাবা’

বাথরুমে দুই শিশুর লাশ

নরসিংদী প্রতিনিধি

‘খরপোষ দিতে না পারার কষ্টে হত্যা করেন বাবা’

আর্থিক অসচ্ছলতা-দারিদ্র্যের কারণে ভরণপোষণ ঠিকমতো দিতে না পাড়ার কষ্ট থেকে নিজের দুই শিশু সন্তানকে হত্যা করেছেন বাবা। আটকের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে দুই সন্তান হত্যার কথা স্বীকার করেন শফিকুল ইসলাম। নরসিংদী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহাম্মেদ। নিহতরা হলো মনোহরদী চালাকচর গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে তাইন (১১) ও তাইবা (৪)। শফিকুল একটি গার্মেন্টে নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। পুলিশ সুপার জানান, শুক্রবার রাতে নরসিংদী লঞ্চ টার্মিনালের বাথরুম থেকে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর তদন্তে নামে তারা। প্রথমে শিশুদের বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বাবা শফিকুল ইসলাম হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। পুলিশ সুপার আরও জানান, ডাক্তার দেখানোর উদ্দেশে বাড়ি থেকে দুই সন্তানকে শিবপুর নিয়ে আসেন শফিকুল ইসলাম। চিকিৎসক না থাকায় তিনি সন্তানদের নরসিংদী লঞ্চ টার্মিনালে ঘুরতে নিয়ে যান। এ সময় ছোট মেয়ে তার কাছে লিচু খেতে চান। কিন্তু তার কাছে পর্যাপ্ত টাকা ছিল না। তাছাড়া সামনে ঈদ। সংসার খরচ ও সন্তানের নতুন কাপড় দিতে হবে- এ সব ভেবে শফিকুল হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। প্রথমে ছোট মেয়েকে লঞ্চ টার্মিনালের বাথরুমে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে একই কায়দায় হত্যা করে বড় মেয়েকে। এসপি জানান, প্রাথমিকভাবে শফিকুল ইসলামকে মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হয়েছে। সে একেক বার একেক কথা বলছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর