শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ আগস্ট, ২০১৯ ০১:২৯

যানজটের ভোগান্তি স্টপেজে!

মাহবুবুর রহমান, শ্রীপুর, (গাজীপুর)

যানজটের ভোগান্তি স্টপেজে!

ঢাকা-ময়মনসিংহ ও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুর অংশে গতকাল গাড়ির চাপ বেশি থাকলেও ছিল না যানজট। তারপরও যাত্রীদের গন্তব্য পৌঁছতে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে বাস চালক-হেলপারদের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে। যাত্রীর আশায় চালকরা প্রতিটি স্টপেজে দীর্ঘ সময় বাস দাঁড় করিয়ে রেখেছে। জয়দেবপুরের চান্দনা চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা ময়মনসিংহগামী শ্যামলী পরিবহনের যাত্রী ইসমাইল হোসেন জানান, পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ময়মনসিংহ যাবেন তিনি। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় টঙ্গী থেকে বাসে উঠেছেন। সোয়া ১২টায় চান্দনা চৌরাস্তা পৌঁছলেও আধ ঘণ্টা ধরে এখানে যাত্রীর জন্য দাঁড়িয়ে আছে বাস। সড়ক ফাঁকা থাকায় ভাবছিলাম অল্প সময়ে বাড়ি পৌঁছতে পারব, কিন্তু তা আর হলো না। ওই গাড়ির চালক জসীম উদ্দিন জানান, আমরাও পরিবার নিয়ে ঈদ করতে চাই। মহাসড়কে যানজট নেই, আবার যাত্রীও কম। খালি গাড়ি নিয়ে গেলে তেল খরচও উঠাতে পারব না। তাই যাত্রীর আশায় প্রতি স্টেশনে ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করছি। ময়মনসিংহগামী আলম এশিয়া পরিবহনের চালক চুমায়ুন কবির জানান, সড়কের কিছু স্থানে থেমে থেমে যান চলছে। এটা যানজটের কারণে নয়। যাত্রী না থাকায় বিভিন্ন স্টপেজে গাড়ি দাঁড় করিয়ে রাখায় এমনটা হচ্ছে। একই কথা জানান, কালিয়াকৈরগামী রাজধানী, গ্রামীর ট্রান্সপোর্ট, ঠিকানা, ময়মনসিংহগামী ইসলাম পরিবহনের যাত্রী-চালকরা। মহাসড়কের সালনা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ একেএম কাওসার বলেন, ‘মহাসড়কের কোনো অংশে যানজট নেই।

যানজট ঠেকাতে সড়কের প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে টহল পুলিশ রাখা হয়েছে। তারা সড়কে যে কোনো সমস্যা নিরসনে নিরলসভাবে কাজ করছে। অন্য বারের তুলনায় এবার যাত্রীরা স্বাচ্ছন্দ্যে বাড়ি ফিরতে পারছেন।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর