শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২৩:০৭

কুষ্টিয়ায় পে-অর্ডার জালিয়াতি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ায় পে-অর্ডার জালিয়াতি

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সোনালী ব্যাংক শাখায় ভুয়া পে-অর্ডার দেখিয়ে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি চক্র। এ ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। সোহেল রানা নামে এক ব্যক্তি সোনালী ব্যাংক দৌলতপুর শাখায় সেবা নিতে আসা লোকদের বিভিন্ন ফরম পূরণ করাসহ নানা কাজে সহযোগিতা করতেন। অনেকে তাকে ওই ব্যাংকের কর্মী মনে করতেন। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে সোহেল ও তারা সহযোগীরা গ্রাহকদের মধ্যে প্রচার চালান, এই ব্যাংকে এক লাখ টাকা জমা রাখলে মাসে এক হাজার ৮০০ থেকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত মুনাফা পাওয়া যাবে। এই প্রস্তাবে এলাকার অনেকে চক্রের ফাঁদে পা দেন।

সোহেল গং গ্রাহকদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে তাদের হাতে পে-অর্ডার ধরিয়ে দেন। টাকা জমা দেওয়ার পর কয়েক মাস চলে গেলেও মাসিক মুনাফার টাকা পাননি ভুক্তভোগীরা। এতে তাদের সন্দেহের সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে তারা চক্রের দেওয়া পে-অর্ডার ভাঙাতে ব্যাংকে গিয়ে জানতে পারেন সেগুলো ভুয়া। এ জালিয়াতির প্রতিবাদ জানিয়ে জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে ভুক্তভোগীসহ এলাকাবাসী। সোহেল রানাসহ প্রতারকরা গাঢাকা দিয়েছে। সোনালী দৌলতপুর শাখার ব্যবস্থাপক ওবাইদুর রহমান বলেন, যে পে-অর্ডারগুলো ভুক্তভোগীদের দেওয়া হয়েছে তা অসম্পূর্ণ। সেখানে আরো দুজন কর্মকর্তার স্বাক্ষর ও সিল থাকার কথা। তাছাড়া প্রাপকের ঘরে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নাম নেই। তাঁর দাবি পে-অর্ডারগুলো ব্যাংকের সরবারহ করা নয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর