শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৪ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ মার্চ, ২০২০ ২৩:৩৭

চাঁদা না দেওয়ায় বন্ধ ভূমিহীনদের চাষাবাদ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁদা না দেওয়ায় বন্ধ ভূমিহীনদের চাষাবাদ

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার ঝাঐল ইউনিয়নের কোনাবাড়ীতে ইউপি সদস্যকে চাঁদা না দেওয়ায় ভূমিহীনদের জমি চাষ বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগীরা এর প্রতিকার পেতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ কয়েকটি দফতরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। শুধু ধান চাষ নয়, চাঁদা না দেওয়ায় বিষ ও গ্যাস ট্যাবলেট দিয়ে দেড় লাখ টাকার মাছও নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। প্রশাসন বলছে, বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লিখিত অভিযোগে জানা যায়, ১৯৯৮ সালে ভূমিহীনরা গ্রামীণ ব্যাংকের কাছ থেকে কোনাবাড়ী এলাকার নলকা থেকে ঝাঐল ব্রিজ পর্যন্ত ১২টি পুকুর লিজ নেয়। ২১ বছর ধরে তারা পুকুরগুলোতে মাছ চাষের পাশাপাশি পানি শুকিয়ে গেলে ইরি-বোরো ধান চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। গত ৬ ফেব্রুয়ারি ইউপি সদস্য হামিদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা মশিউর রহমান মশুরসহ কয়েকজন পুকুরগুলো দখল করার জন্য বিষপ্রয়োগ ও গ্যাসের ট্যাবলেট দিয়ে মাছ মেরে ফেলে। বর্তমানে পুকুর শুকিয়ে যাওয়ায় ভূমিহীনরা ধান চাষের প্রস্তুতি নিলে অভিযুক্তরা বাধা দেয় এবং চাঁদা না দিলে ধান চাষ করতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি দিচ্ছে। ইউপি সদস্য হামিদুল ইসলাম অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, পুকুরগুলোতে মাছ ও ধান করা নিয়ে দুটি পক্ষ হয়েছে। আমি শুধু বলেছি, দুই পক্ষ মিলেমিশে চাষাবাদ করো। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি তদন্তের জন্য সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এস এম শহিদুল্লাহ সবুজ জানান, দীর্ঘদিন ধরে ভূমিহীনরা পুকুরগুলোতে মাছ ও ধান চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করছে। ইউপি সদস্য কেন সেগুলো দখলের চেষ্টা করছে বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর