শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০

বরেন্দ্র অঞ্চলে হারিয়ে যাচ্ছে গরিবের এসি

নওগাঁ প্রতিনিধি

বরেন্দ্র জেলা নওগাঁ থেকে দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে গরিবের এসি খ্যাত মাটির তৈরি বাড়ি। ঝড়-বৃষ্টি থেকে বাঁচার পাশাপাশি প্রচুর গরম ও শীতে আরামে বসবাস উপযোগী এ মাটির ঘর। বরেন্দ্র অঞ্চলে এসব মাটির বাড়িঘর আর তেমন চোখে পড়ে না। আধুনিকতার ছোঁয়ায় বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার এ ঐতিহ্য। জানা যায়, এক সময় নওগাঁর বিভিন্ন গ্রামের মানুষের কাছে মাটির তৈরি ঘর ছিল ঐতিহ্যের প্রতীক। বিত্তবানরাও তখন বহু অর্থ ব্যয় করে মাটির দ্বিতল ঘর তৈরি করতেন। যা এখনো দু-একটি চোখে পড়ে। এঁটেল বা আঠালো মাটি কাঁদায় পরিণত করে ২-৩ ফুট চওড়া করে দেয়াল বা ব্যাট তৈরি করা হয় ১০-১৫ ফুট উঁচু। দেয়ালে বাঁশের শিলিং তৈরি করে তার ওপর খড় বা টিনের ছাউনি দেওয়া হয়। মাটির বাড়ি দোতলা পর্যন্ত করা হতো। গৃহিণীরা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে মাটির দেয়ালে নানা আল্পনা এঁকে ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতেন। বর্ষা মৌসুমে মাটির বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয় বলে বর্তমানে দীর্ঘস্থায়িত্বের কথা ভেবে অনেকেই ইটের বাড়ি নির্মাণে আগ্রহী হচ্ছেন।

 পত্নীতলার বীর মুক্তিযোদ্ধা মঞ্জুর এলাহী, মহাদেবপুরের শাহীনুর রহমান জানান, মাটির তৈরি বাড়িতেই তাদের বাবা-দাদারা জীবন কাটিয়েছেন। এখনো তারা এ বাড়িগুলো ভাঙেননি। তাদের ভাষ্য, মাটির বাড়ি বসবাসের জন্য আরামদায়ক হলেও বর্তমানে অনেকে মাটির ঘর ভেঙে ইটের বাড়ি তৈরি করছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর