শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৩ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ আগস্ট, ২০২১ ২৩:৪৯

সেই ইউপি চেয়ারম্যান দুদকের মামলায় ফের কারাগারে

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

সেই ইউপি চেয়ারম্যান দুদকের মামলায় ফের কারাগারে
Google News

সালিশ বৈঠকের সুযোগে কিশোরীকে বিয়ে করা আলোচিত সেই কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদারকে এবার ১০ টাকা কেজি চাল বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগে দুদকের মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। গতকাল পটুয়াখালীর সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে তা নামঞ্জুর করে ইউপি চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদারসহ ছয় আসামিকে কারাগারে পাঠায় বিচারক সিনিয়র স্পেশাল জজ এবং জেলা ও দায়রা জজ রোখসানা পারভীন। অন্য আসামিরা হলেন কনকদিয়া ইউপির সচিব মজিবুর রহমান, সাবেক উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান, কনকদিয়া ইউপির ১ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য মো. নিজাম উদ্দিন হাওলাদার, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আশরাফুল আলম ও মেজবাহ উদ্দিন তালুকদার। রাষ্ট্রপক্ষে দুদকের আইনজীবী ছিলেন কেবিএম আরিফুল হক।

আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন মো. মজিবুর রহমান টোটন ও মো. জাহাঙ্গীর হাওলাদার। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৬ সালের অক্টোবরে হতদরিদ্রদের মধ্যে ১০ টাকায় চাল বিক্রির কার্যক্রমে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি করেন ইউপি চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার। পরে তদন্তে নামে দুদক। সত্যতা পেয়ে শাহিন হাওলাদারকে প্রধান আসামি করে ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আরও ছয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করেন। ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি শাহিন হাওলাদার গ্রেফতার হন। ওই মামলায় একই বছরের ১৪ ডিসেম্বর অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পটুয়াখালী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক মানিক লাল দাস। বিজ্ঞ বিচারক জেলা ও দায়রা জজ রোখসানা পারভীন স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে অধিকতর তদন্তের জন্য পুনরায় মামলাটি তদন্তের জন্য পাঠালে পরবর্তীতে পটুয়াখালী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক আরিফ হোসেন ছয় আসামিকে অভিযুক্ত করে ২০২১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এই বিভাগের আরও খবর