Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ জুলাই, ২০১৯ ১৭:৩৬

নেত্রকোনায় ফুলে উঠছে সোমেশ্বরী, ভাঙনের কবলে দুই গ্রাম

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:

নেত্রকোনায় ফুলে উঠছে সোমেশ্বরী, ভাঙনের কবলে দুই গ্রাম

টানা বৃষ্টিতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ফুলে উঠছে নেত্রকোনার দুর্গাপুরের পাহাড়ী নদী সোমেশ্বরী। গত দুইদিন ধরে বৃষ্টিতে ২য় বারের মতো নদটি ফেঁপে উঠছে। বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে পানি। কিছু কিছু নিম্ন এলাকায় পানি জমে জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। 

বুধবার রাতে বৃষ্টি না হওয়ায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পানি কিছুটা কমতে শুরু করলেও দেখে দিয়েছে কুল্লাগড়া ইউনিয়নের দুটি গ্রামের সড়কের পাড় ভাঙন। আর এই আতংকে এখন এলাকাবাসী। সঠিক সময়ে সঠিকভাবে বাঁধ নির্মাণ করলে হয়তো মাটি ভেঙ্গে পড়তো না। 

উপজেলার কুল্লাউড়া ইউনিয়নের ২ ও ৫নং ওয়ার্ড বারইকান্দা, ঢুলিপাড়া, কামারখালীতে নদী তীরবর্তী এলাকাগুলোতে গ্রামীণ মানুষের চলাচলের রাস্তা ভেঙ্গে হুমকির মুখে পড়েছে মসজিদ, মন্দির সহ পুরো গ্রাম। ইতিমধ্যে এই এলাকায় মাইকিং করে নদী তীরবতী মানুষদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়েছে স্থানীয় জন প্রতিনিধিরা। 

বাবু নামের স্থানীয় এক যুবক জানান, প্রশাসন সময়মতো কিছুই করে না। দুইদন যাবত তাদেরকে জানিয়ে আসলেও বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত তাদের দেখা মিলেনি। মানুষ যখন বাড়িঘর হারিয়ে পানিতে বসে থাকবে তখন তারা চিড়া মুড়ি দিতে আসবে। এটাই কি তাদের কাজ? 

২ নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার শফিকুল ইসলাম জানান, সময়মতো বাঁধ দিলে আজ এই অবস্থা হতো না। অনেকের বাড়ি ভেঙ্গে গেছে এরইমাঝে। তাদেরেকে পরিষদে নিয়ে জায়গা দিয়েছি। প্রশাসন এ সমস্থ ব্যাবাপরগুলো নিয়ে প্রতিবছরই ঢিলিমিছি করে। যে কারণে ভুগতে হয় সাধারণ মানুষদের। 

দূর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারজানা খানম বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, ভাঙ্গন কবলিত ও প্লাবিত এলাকাগুলো পরিদর্শনে বের হয়েছেন। পরবর্তীতে ব্যাবস্থা নেবেন। 

তবে এ ব্যাপারে এ প্রতিবেদক সরাসরি ইউএনওর সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি মোবাইল ফোন রিসিভ করেননি। 

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার

 


আপনার মন্তব্য