Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ জুলাই, ২০১৯ ২১:৩০

পাবনায় ছেলেধরা সন্দেহে জনতার হাতে আটক নারীসহ ৩ জনকে উদ্ধার করল পুলিশ

পাবনা প্রতিনিধি

পাবনায় ছেলেধরা সন্দেহে জনতার হাতে আটক নারীসহ ৩ জনকে উদ্ধার করল পুলিশ

পাবনায় ছেলেধরা সন্দেহে জনতার হাতে আটক এক নারীসহ তিনজনকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার বিকেলে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে জহুরুল ইসলাম (৩০) ও জিয়া উদ্দিন (৩৫) নামে দুইজন ও সদর উপজেলার ভাড়ারা ইউনিয়নের দড়িভাউডাঙ্গা গ্রাম থেকে সোনিয়া খাতুন (২২) নামে এক নারীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

সোনিয়া চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার উজিরপুর গ্রামের মো. মঞ্জুর হোসেনের মেয়ে। সোনিয়া বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করেন বলেও জানান পুলিশ।

জহুরুল ও জিয়া উদ্দিন মানসিক ভারসাম্যহীন ভবঘুরে। তারা নিজেদের নাম ছাড়া কিছুই বলতে পারে না। তারা রোহিঙ্গা বলে ধারণা করছে পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। 

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওবাইদুল হক জানান, প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি তারা তিনজনই কোনো ছেলেধরা নয়। জহুরুল ও জিয়া উদ্দিন মানসিক ভারসাম্যহীন ও ভবঘুরে। তাদের ভাষা পরিষ্কার বোঝা যায় না। তারা রোহিঙ্গা বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। এছাড়া সোনিয়া ভিক্ষুক। তাদের বিষয়ে আরও তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে। 

তিনি আরও বলেন, সারাদেশে ছেলে ধরা গুজবের কারণে আমরা খবর পেয়ে দ্রুত তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। 

পাবনার পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম বলেন, ছেলেধরা সন্দেহে কোনো গুজবে কান না দেয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ করেন। অপরিচিত কাউকে দেখলে বা গতিবিধি সন্দেহজনক হলে পুলিশে খবর দিন। কেউ আইন হাতে তুলে নেবেন না।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য