শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ জুন, ২০২০ ১১:১২

ভারতীয় ক্রিকেটেও বর্ণবিদ্বেষের ছায়া

অনলাইন ডেস্ক

ভারতীয় ক্রিকেটেও বর্ণবিদ্বেষের ছায়া
অভিনব মুকুন্দ-ডোড্ডা গণেশ

ভারতের জাতীয় দলে খেলে যাওয়া ব্যাটসম্যান অভিনব মুকুন্দ সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো বিস্ফোরণ ঘটিয়েছেন। অভিনবের অভিযোগ, কালো হওয়ায় দেশের যে প্রান্তেই তিনি যান, সেখানেই তাকে প্রাপ্য সম্মান দেওয়া হয় না। উল্টে হেনস্থা করা হয়। এমনকি বিভিন্ন রকম নামে ডাকা হয়। 

অভিনবের কথার রেশ ধরে এবার বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন ভারতের জাতীয় দলে খেলে যাওয়া আরেক সাবেক তারকা ডোড্ডা গণেশ। তার অভিযোগ আরও গুরুতর। ডোড্ডা গণেশের দাবি, কালো হওয়ায় সতীর্থদের কাছেই হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে তাকে। সেসবের সাক্ষী নাকি ছিলেন এক কিংবদন্তি ভারতীয় ক্রিকেটার। 

ডোড্ডা গণেশ বলছেন, ‘অভিনব মুকুন্দের গল্প শোনার পর আমার মনে পড়ছে কীভাবে খেলার সময় আমাকে বর্ণবিদ্বেষের শিকার হতে হতো। শুধু একজন কিংবদন্তি ভারতীয় তারকা সেসব ঘটনার সাক্ষী আছেন। তবে সেসব বিদ্বেষমূলক মন্তব্য আমাকে আরও শক্ত করেছে। আর সেজন্যই আমি জাতীয় দলের হয়ে খেলতে পেরেছি। কর্ণাটকের হয়ে ১০০'র বেশি ম্যাচ খেলেছি।

এরপরই গণেশের সংযোজন, ‌সেসময় আমি বর্ণবিদ্বেষমূলক মন্তব্যগুলির গুরুত্ব বুঝতাম না। প্রতিবাদ করার কোনও জায়গাও ছিল না। আশা করব ভবিষ্যতে আর কোনও ভারতীয়কে এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না।

উল্লেখ্য, গণেশ ১৯৯৭ সালে ভারতের হয়ে চারটি টেস্ট এবং একটি ওয়ানডে খেলেছিলেন। কর্ণাটকের হয়ে ১০০টির বেশি রনজি ম্যাচ খেলেছেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে ৩৬৫ টি উইকেটের মালিক তিনি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড চোখ খুলে দিয়েছে ক্রীড়ামহলের। কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডকে আট মিনিট ধরে হাঁটুর নিচে চেপে রেখেছিল শ্বেতাঙ্গ পুলিশ। একযোগে বিশ্বব্যাপী বর্ণবিদ্বেষের প্রতিবাদ করছেন ক্রীড়া জগতের ব্যক্তিত্বরা। বর্ণবিদ্বেষের ঘটনা যে ভারতবর্ষেও ঘটে, তার প্রমাণ মিলল এবার।         


বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর