শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ জুলাই, ২০২০ ১৮:১২

বরিশালে চোর চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:

বরিশালে চোর চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার

বরিশাল নগরীর কাউনিয়া থেকে চুরি যাওয়া ২টি সহ ৪টি মোটর সাইকেল যশোরের অভয়নগর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অবিযোগে বরিশাল, খুলনা ও গোপালগঞ্জ থেকে আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে নগরীর কাউনিয়া থানা পুলিশ। 

রবিবার বেলা ১২টায় নগরীর নগরীর লুৎফর রহমান সড়কে মেট্রোপলিটন পুলিশের উত্তর জোন কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান উপ-কমিশনার (উত্তর) মো. খাইরুল আলম।

তিনি বলেন, গত ৫ জানুয়ারী রাত ১১ টায় নগরীর ১নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম কাউনিয়া এলাকার জনৈক  মো. আফজাল হোসেনের বাসার গেট ভেঙ্গে তার ব্যবহত লাল রংয়ের একটি বাজাজ পালসার মোটর সাইকেল চুরি হয়। ২২ জানুয়ারী ভোর ৫টার দিকে একই ওয়ার্ডের পশ্চিম কাউনিয়া হাজেরা খাতুন সড়কের মো. লাবু খানের একটি ইয়ামাহা এফ.জেড-৫ মোটর সাইকেল বাসার গেট ভেঙ্গে চুরি হয়। সব শেষ গত ২১ জুন ভোর রাত ৪ টার দিকে কাউনিয়া পিছনের স্কুলের ঋষিক সমাদ্দারের একটি সুজুকি মোটর সাইকেল চুরি হয়। এসব ঘটনায় থানায় পৃথক মামলা দায়ের হয়। একই এলাকা থেকে বাসার গেট ভেঙ্গে ৩টি দামী মোটর সাইকেল চুরির ঘটনায় কাউনিয়া থানা পুলিশকে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে। কোন প্রাথমিক ক্লু না থাকায় তদন্ত কাজ আটকে যায়। 

উপ-কমিশনার খাইরুল জানান, গোয়েন্দা সূত্রে খবর পেয়ে গত ১০ জুলাই রাতে কাউনিয়া থানা পুলিশ নগরীর পুরানপাড়া এলাকা থেকে পলাশপুরের ইসলাম নগরের মন্টু হাওলাদারে ছেলে মো. জসিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদে জসিম পুলিশকে জানায়, ২১ জুলাই খুলনা থেকে আসা অহিদ মোল্লা ও কালা রাজু কাউনিয়া পিছনের স্কুলের একটি বাসার গেটের তালা ভেঙ্গে কালো রংয়ের একটি সুজুকি গ্লাক্সি মোটরসাইকেল চুরি করে খুলনা নিয়ে যায়। মোটর সাইকেলটি খুলনার তেরখাদার সুজনের কাছে রক্ষিত আছে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ১১ জুলাই দুপুরে তেরখাদা অভিযান চালিয়ে গ্যারেজ মালিক সুজন বৌদ্ধকে গ্রেফতার করে। 

সুজন জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে জানায়, সুজকী মোটর সাইকেলটি খুলনার ফুলতলার মাসুদের হেফাজতে আছে, তবে মাসুদ অবস্থান করছে গোপালগঞ্জের ফুকরা গ্রামে। ওইদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় গোপালগঞ্জের হরিদাসপুর এলাকা থেকে মাসুদ রানা ও তার সহযোগী শ্রাবন সরদারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ওইদিন রাতে পুনরায় যশোরের অভয়নগর থানার আকুঞ্জিপাড়ার জনৈক মাহমুদের বাসায় অভিযান চালিয়ে বরিশাল থেকে চুরি যাওয়া বাজাজ পালচার ও সুজুকি এবং সেখান থেকে আরও ২টি সহ মোট ৪টি চোরাই মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করে কাউনিয়া থানা পুলিশ। তবে বাসার মালিক মাহমুদ পালিয়ে যায়। 

গ্রেফতারকৃত ৪ জনকে মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় ইতিপূর্বে দায়ের করা মামলায় রবিবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে। এই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেফতারে পুলিশের জোরদার অভিযান চলছে বলে জানান উপ-কমিশনার খাইরুল আলম।

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর