শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ আগস্ট, ২০২০ ২০:৩৭

দুর্ভোগে দিশেহারা সিরাজগঞ্জের বন্যা কবলিতরা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

দুর্ভোগে দিশেহারা সিরাজগঞ্জের বন্যা কবলিতরা

সিরাজগঞ্জে টানা দুইমাস বন্যার পানি বসতবাড়িতে থাকায় দুর্ভোগের শেষ নেই বন্যা কবলিতদের। বন্যা-বৃষ্টি ভাঙ্গনে দিশেহারা হয়ে পড়ছে তারা। চতুর্থ দফা ফের পানি বাড়ায় দুর্বিসহ অবস্থায় পড়েছে বন্যা কবলিতরা। এমনিতেই টানা দুইমাসের বন্যায় ঘরবাড়ি আসবাসপত্র নষ্ট হয়ে চরম ক্ষতির শিকার হয়েছে। তারমধ্যে আবার পানি বাড়ায় ঘরবাড়ি ধ্বসে পড়ার আশঙ্কা করছে বন্যা কবলিতরা। 

চলতি বন্যায় কর্ম না থাকায় অনেক পরিবার অর্ধাহারে অনাহারে দিনযাপন করছে। সরকারী সহায়তার ১০ কেজি চাল একমাস আগেই শেষ হয়েছে। এ পানিবন্দী মানুষের মধ্যে চরম খাদ্য, ওষুধ ও শুকনো খাবারের সংকট দেখা দিয়েছে। পাশাপাশি পানিবাহিত ডায়রিয়া ও হাত পায়ে ঘাসহ নানা রোগ দেখা দিয়েছে। অনেক বসতভিটার চারপাশে পানি থাকায় শিশু-বয়োবৃদ্ধদের নিয়ে বন্দী জীবযাপন করছে মানুষ। এ বছর টানা দুই মাসের বন্যায় জেলায় কৃষি, পুকুরের মাছ, রাস্তাঘাটসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ফসল হারিয়ে কৃষকরাও দিশেহারা হয়ে পড়েছে। প্রায় সহস্রাধিক বসতবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ফসলি জমি বিলীন হয়ে গেছে। নিঃস্ব হয়ে পড়েছে যমুনা পাড়ের মানুষ। 

চর মিরপুর এলাকার মনিজা খাতুন ও আম্বিয়া খাতুন জানান, এমনিতেই বৃদ্ধ। স্বামী নেই, সন্তানদের কাজ নেই। দুইমাস পানিবন্দী থাকার পর বাড়ি গিয়ে সব কিছু তছনছ হয়ে গেছে। বাড়িতে ওঠার চেষ্টা করছিলাম। ফের পানি বাড়ায় আর ফিরতে পারলাম না। এতো কস্ট আর সহ্য হয় না। 


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর