শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২০:২৯
আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২১:১৯

ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ, অভিযোগ করে ৫ হাজার টাকা পেল স্কুলছাত্র!

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:

ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ, অভিযোগ করে ৫ হাজার টাকা পেল স্কুলছাত্র!
স্কুলছাত্র আদনান সামীর হাতে ৫ হাজার টাকা তুলে দেন সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল

মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ দেওয়ায় এক ফার্মেসির বিরুদ্ধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে অভিযোগ করেন ৭ম শ্রেণীর ছাত্র আদনান সামী। এরপর সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মানিকগঞ্জ জেলার সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল। অভিযোগের সত্যতা মেলায় তাৎক্ষণিক ফার্মেসি মালিককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আর নিয়ম অনুযায়ী এই জরিমানার ২৫ শতাংশ অর্থাৎ ৫ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয় অভিযোগকারী স্কুলছাত্র আদনানের হাতে। 

স্কুলছাত্র আদনান সামী জানান, তিনি গত ২৫ সেপ্টেম্বরে গিলন্ড বাজারে অবস্থিত বিসমিল্লাহ ফার্মেসি থেকে একটি ওষুধ ক্রয় করে বাসায় নিয়ে যান, সেবনের পূর্বে তার বাবা লক্ষ্য করেন ক্রয়কৃত ওষুধটি তিন মাস পূর্বেই মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে। ওষুধটি ফেরত দেওয়ার সময় একই বাজারে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের অভিযান চলছিল। এসময় স্কুলছাত্র আদনান বিষয়টি ভোক্তা অধিকার মানিকগঞ্জ জেলার সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেলকে জানান এবং লিখিত অভিযোগ দেন। পরে আসাদুজ্জামান রুমেল তাৎক্ষণিক ওই ফার্মেসিতে অভিযান চালান। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় ওই ফার্মেসিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় ফার্মেসি মালিক ভবিষ্যতে এমন অপরাধ করবেন না মর্মে মুচলেকা প্রদান করেন। সেই সাথে জব্দকৃত বিপুল সংখ্যক মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ ধ্বংস করা হয়।

এদিকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ অনুযায়ী অভিযোগকারীকে জরিমানার ২৫ শতাংশ হিসেবে ৫০০০ টাকা তাৎক্ষণিক প্রদান করা হয়। অভিযোগ করে তাৎক্ষণিক সমাধান এবং আরও ৫ হাজার টাকা পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয় স্কুলছাত্র আদনান সামী। 

এ প্রসঙ্গে মানিকগঞ্জ জেলার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ওই স্কুলছাত্রের অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাৎক্ষণিক ওই ফার্মেসিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর