শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ মে, ২০২১ ১২:২০
প্রিন্ট করুন printer

সোনাতলায় আব্দুল মান্নান একাডেমিক ভবনের নির্মাণ কাজ শেষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

সোনাতলায় আব্দুল মান্নান একাডেমিক ভবনের নির্মাণ কাজ শেষ
Google News

৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪তলা বিশিষ্ট বগুড়ার সোনাতলার ইউনাইটেড স্কুল অ্যান্ড কলেজের আব্দুল মান্নান একাডেমিক ভবনের কাজ শেষ হয়েছে। লেখাপড়ার সুন্দর পরিবেশ ও আধুনিক ভবন নির্মাণের পর এখন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির জাতীয়করণের দাবি তুলেছে এলাকাবাসী।

জানা যায়, সোনাতলা উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার দক্ষিণে সোনাতলা, সারিয়াকান্দি ও গাবতলী উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় বেশ মনোরম পরিবেশে ১৯৬৬ সালে স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত। বেশ সুনামের সাথে স্কুলটি পরিচালিত হয়ে আসছে। ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে রাজশাহী মাধ্যমিক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড প্রতিষ্ঠানটিতে একাদশ মানবিক, বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় ছাত্রছাত্রী ভর্তির অনুমতি দেয়। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) শিক্ষক নিয়োগ না দেওয়ায় প্রতিষ্ঠানটিতে এখন পর্যন্ত একাদশ শ্রেণি চালু করা হয়নি। প্রতিবছর জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল অন্যসব প্রতিষ্ঠানের চেয়ে শীর্ষে রয়েছে।

স্থানীয় লোকজন জানান, শিক্ষানুরাগী ব্যক্তি মরহুম খবিবর রহমান ও এলাকার শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গের প্রচেষ্টায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রথমে হাতে গোনা কয়েকজন শিক্ষার্থী নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি পদযাত্রা শুরু হলেও বর্তমানে ওই প্রতিষ্ঠানে ৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত প্রতিটি শ্রেণিতে ৩টি করে শাখা চালু রয়েছে। এছাড়াও ৯ম ও ১০ম শ্রেণিতে দুইটি করে শাখা চালু রয়েছে।

বর্তমানে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় ১২ শতাধিক। শিক্ষক-কর্মচারী রয়েছে ২১ জন। ওই বিদ্যালয়ের আশপাশের প্রায় ২০ থেকে ২২টি গ্রামের ছাত্র-ছাত্রী পায়ে হেঁটে, সাইকেল কিংবা অটো ভ্যানযোগে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়া করে। লেখাপড়ার মান অত্যন্ত ভালো। অভিজ্ঞ শিক্ষক-শিক্ষিকামণ্ডলী দ্বারা প্রতিষ্ঠানটি পরিচালিত।

ওই বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট মিনহাদুজ্জামান লীটন জানান, সোনাতলা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠের মধ্যে ইউনাইটেড স্কুল একটি সুনামধন্য প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যবধি প্রতিষ্ঠানটির ফলাফল অন্য বিদ্যালয়ের চেয়ে শীর্ষে।

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আজিজার রহমান জানান, বিদ্যালয়টিতে ভৌত অবকাঠামো অত্যন্ত সন্তোষজনক। সীমানা প্রাচীর বেষ্টিত প্রতিষ্ঠানটিতে লেখাপড়ার মান ভাল। তাই প্রতিবছর ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভালো ফলাফল করতে সক্ষম হয়।

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন জানান, বিদ্যালয়টিতে জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র রয়েছে। পাশাপাশি ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রতিবছর ভালো ফলাফল করতে সক্ষম হয়।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমিনুল ইসলাম জানান, বর্তমান সরকার শিক্ষা সহায়ক সরকার। এই প্রতিষ্ঠানের অনেক শিক্ষার্থী সরকারের গুরু দায়িত্ব পালন করে আসছে। তাই এই সরকারের আমলেই প্রতিষ্ঠানটি জাতীয়করণ করার জোড় দাবি জানান।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর