শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ মে, ২০২১ ২১:০৯
আপডেট : ২৬ মে, ২০২১ ২১:১৩
প্রিন্ট করুন printer

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস

বাগেরহাটে পানিবন্দী ৩ হাজার পরিবার, ভেসে গেছে ২০৯১ খামারের চিংড়ি

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটে পানিবন্দী ৩ হাজার পরিবার, ভেসে গেছে ২০৯১ খামারের চিংড়ি
Google News

বাগেরহাটে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে পানিবন্দী হয়ে পড়েছে প্রায় ৩ হাজার পরিবার। এছাড়া জেলার শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, রামপাল ও মোংলা উপজেলায় ২ হাজার ৯১টি চিংড়ি খামারের মাছ ভেসে গেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে জেলা মৎস্য বিভাগ।

এদিকে, বাগেরহাটে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের জলোচ্ছ্বাসে ভাসিয়ে নেওয়ার পর জিনিয়া নামে ৪ বছরের এক মেয়ে শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকাল ১০টায় ঘরের মেঝেতে বসে খেলা করা এই শিশুটিকে হঠাৎ করে জলোচ্ছ্বাসের তোড় ভাসিয়ে নিয়ে যায়। পরে ৪ ঘণ্টা পর বাড়ির পাসের ডোবা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। মৃত শিশু জিনিয়া জেলার মোরেলগঞ্জে চালিতাবুনিয়া গ্রামের কামাল গাজীর মেয়ে।

এছাড়া বুধবার সকালে জলোচ্ছ্বাসে পুরো সুন্দরবন ৪ থেকে ৬ ফুট পানির নিচে তলিয়ে যায়। পানির তোড়ে পূর্ব সুন্দরবনের চান্দেরশ্ব ও কোকিলমুনির দুটি বন অফিস, একটি স্টাফ ব্যারাক, একটি রেস্ট হাউজ, একটি ফুট ট্রেল বিধ্বস্ত ও ১১টি রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

পাশাপাশি ৬টি পুকুর লবণ পানিতে তলিয়ে গেছে। গাছপালার ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বিকেল পর্যন্ত জানাতে না পারলেও দুবলা ও শরণখোলায় দুটি মৃত হরিণ ও মোরেলগঞ্জের একটি খাল থেকে সুন্দরবনের বিলুপ্তপ্রজাতির একটি মৃত ইরাবতী ডলফিন উদ্ধারের তথ্য নিশ্চিত করেছে বন বিভাগ।

সুন্দরবনের সব থেকে উঁচু এলাকা করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে পানিতে তলিয়ে গেলেও বন্যপ্রাণীগুলো নিরাপদ রয়েছে। জেলার শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, রামপাল ও মোংলা উপজেলায় ২ হাজার ৯১টি চিংড়ি খামারের মাছ ভেসে গেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে জেলা মৎস্য বিভাগ।

শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, রামপাল ও মোংলা উপজেলা থেকে প্রাপ্ত প্রাথমিক তথ্যে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের জলোচ্ছ্বাসে প্রায় ১০০ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মোরেলগঞ্জ উপজেলায় প্রায় ৩০ কিলোমিটার কাঁচা-পাকা সড়ক নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। এসব উপজেলায় ৩ হাজারের অধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

মোংলা উপজেলার চিলা, চাঁদপাই ও বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের প্রায় ৮০০ পরিববার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার কমলেশ মজুমদার। পানিবন্দীদের উদ্ধারের পাশাপাশি খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর