২৩ অক্টোবর, ২০২১ ১৮:৪৫

দুই নির্বাচনে ভরাডুবি হলেও নৌকা পেতে মরিয়া আওয়ামী লীগ নেতা

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

দুই নির্বাচনে ভরাডুবি হলেও নৌকা পেতে মরিয়া আওয়ামী লীগ নেতা

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আওরঙ্গজেব বুলেট গত দুই নির্বাচনে ভরাডুবি হলেও আবারো নৌকা পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। তার বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন, মারামারি, সরকারী জমি দখল ও কাজে বাধাদানের অভিযোগে ৩টি মামলা রয়েছেন। এসব মামলা থাকলেও তথ্য গোপন করে নৌকা পেতে উঠেপড়ে লেগেছেন তিনি। এ নিয়ে উপজেলার আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।  

জানা গেছে, গত ২০১১ ও ২০১৬ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওরঙ্গজেব বুলেট নৌকা নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়েছিলেন। ওই দুই নির্বাচনে তার শোচনীয় পরাজয় হয়। তার এই চরম ভরাডুবির কারণে এলাকার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা হতাশ হয়েছিলেন। তার বিরুদ্ধে দলীয় পদবী ব্যবহার করে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। ২০১৮ সালে সরকারী বনবিভাগের জমি দখল ও কাজে বাধাদানের অভিযোগ এনে চট্টগ্রামের পদুয়া রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো. ফাহিম মাসউদ বাদী হয়ে চকরিয়া থানায় একটি (জি আর-২৫/১৮) মামলা দায়ের করেন। একইভাবে ২০২০ সালে তার বিরুদ্ধে উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের বার আউলিয়া নগরের বাসিন্দা ছলিম উল্লাহ বাদী হয়ে হত্যাচেষ্টা ও মারামারি মামলা । এর আগে কক্সবাজারের নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে একটি (এসটি মামলা-১২৪) চলমান রয়েছে।  

লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নুরুল আবছার বলেন, আওরঙ্গজেব বুলেট তার বিভিন্ন অপকর্ম আড়াল করে জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের ভুল বুঝিয়ে নৌকা প্রতিক পেতে তৎপরতা চালাচ্ছেন। 
অপরদিকে তার অপকর্মের ফিরিস্তি আবেদন আকারে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে বলেও স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান।

এ বিষয়ে জানতে লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আওরঙ্গজেব বুলেটের মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল

সর্বশেষ খবর